চীনা আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের পাশেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রঃ মার্কিন বিদেশসচিব মাইক পম্পে

4
চীনা আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের পাশেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রঃ মার্কিন বিদেশসচিব মাইক পম্পে

দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে ভারতীয় ভূখণ্ড দখলেরউদ্দেশ্যে লাদাখের ভারত-চীন সীমান্তে ঘাঁটি গেড়ে রয়েছে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মির সদস্যরা। চীনের আগ্রাসী মনোভাবের পরিচয় বার বার পেয়েছে সারা বিশ্ব। সম্প্রতি, একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় মার্কিন বিদেশসচিব মাইক পম্পেও, চীনা আগ্রাসনের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি প্রদান করলেন।

মঙ্গলবার একটি সর্বভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে মার্কিন বিদেশসচিব জানালেন, চীনা কমিউনিস্ট পার্টির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যেন কখনোই নিজেদের একা মনে না করে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সর্বদাই এই লড়াইয়ে ভারতের পাশেই রয়েছে। শুধু তাই নয়, ভারত-চীনের এই লড়াইয়ে ভারতের পাশে আমেরিকা ছাড়াও থাকবে অস্ট্রেলিয়া এবং জাপান, এমনটাই জানিয়েছেন মার্কিন বিদেশ সচিব।

উল্লেখ্য, এ দিন মার্কিন বিদেশ সচিবের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব মার্ক টি এসপার। মাইক পম্পেওর বক্তব্য অনুসারে, আমেরিকা, ভারত, অস্ট্রেলিয়া এবং জাপানের মধ্যে সম্পর্ক ক্রমশই আরো দৃঢ় হচ্ছে। এই চারটি দেশের অটুট সম্পর্কের জেরে বিপদের সময় কোনো দেশ কখনোই একা হয়ে পড়বে না। পাশাপাশি, চীনে বসবাসকারী উইঘুর সম্প্রদায়ের মানুষের প্রতি চীনা প্রশাসনের আচরণের বিরোধিতাও করেছেন তিনি।

এ প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি বলেছেন, উইঘুর সম্প্রদায়ের প্রতি চীনের আচরণ বিংশ শতাব্দীর তৃতীয় দশকে ইহুদিদের প্রতি নাৎসিদের বর্বর আচরণের কথা স্মরণ করিয়ে দেয়। উল্লেখ্য, এদিন বক্তব্য রাখা কালীন মার্কিন বিদেশসচিব বারবার চীনা কমিউনিস্ট পার্টির বিরোধিতা করেছেন। তিনি স্পষ্টতই বলেছেন, আমেরিকা চীনা কমিউনিস্ট পার্টির মতাদর্শের বিরোধিতা করে। এমনকি করোনা অতিমারীর জন্যেও চীনা কমিউনিস্ট পার্টির অবহেলাকেই দায়ী করেছেন মার্কিন বিদেশ সচিব।