বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলা চালানোর ঘটনায় তীব্র সমালোচনা আমেরিকার

7
বাংলাদেশে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর হামলা চালানোর ঘটনায় তীব্র সমালোচনা আমেরিকার

বাংলাদেশের সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের দুর্গা মন্ডপে ভাঙচুরের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কার্যত আন্তর্জাতিক মহলেও চূড়ান্ত সমালোচিত হতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। ভারত তো বটেই, আমেরিকা পর্যন্ত এই ঘটনার তীব্র সমালোচনা করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে সরাসরি আমেরিকার তরফ থেকে বার্তা পৌঁছেছে।

কুমিল্লার একটি দুর্গা মন্ডপে হনুমানের মূর্তির পায়ের নিচে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআন রাখার পরিপ্রেক্ষিতে সারা বাংলাদেশ জুড়ে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। প্রায় দশটি জেলাজুড়ে তাণ্ডব চালিয়েছে বাংলাদেশের মৌলবাদীরা। একাধিক দূর্গা মন্ডপ ও প্রতিমা ভাঙচুর চালিয়েছে তারা। শুধু তাই নয়, বেশকিছু মন্দিরেও হামলা চালানো হয়েছে।

এছাড়া কয়েকদিন আগেই নোয়াখালীতে ইসকন মন্দিরে হামলা চালানোর ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে এক ব্যক্তির। আরো বেশ কয়েক জনের মৃত্যু হয়েছে এই অশান্তির পরিবেশে। বাংলাদেশের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে প্রতিবাদে সরব হয়েছেন বুদ্ধিজীবীরা। যদিও শেখ হাসিনা ইতিমধ্যেই এই বিষয়ে মুখ খুলে জানিয়েছেন যারা হিন্দু মন্দিরে হামলা চালিয়েছেন তারা প্রত্যেকেই শাস্তি পাবেন। কিন্তু তাতেও অশান্তির ঘটনা এড়ানো যাচ্ছে না।

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ, চট্টগ্রামের বাঁশখালী, চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ এবং কক্সবাজারের পেকুয়াতে ভাঙচুরের ঘটনার খবর মিলেছে। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন বিদেশ দফতরের মুখপাত্র নেড প্রাইস হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রতি সহমর্মিতা জানিয়ে ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন। একইসঙ্গে বাংলাদেশের প্রশাসনকে এই বিষয়ে পূর্ণতদন্তের আর্জি জানানো হয়েছে আমেরিকার তরফ থেকে।