করোনার তৃতীয় ঢেউ অনিবার্য! সংক্রমণ ঠেকাতে রাজ্যগুলিকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী

23
করোনার তৃতীয় ঢেউ অনিবার্য! সংক্রমণ ঠেকাতে রাজ্যগুলিকে সতর্ক করলেন প্রধানমন্ত্রী

করোনার তৃতীয় ঢেউ মানুষের চিন্তা বাড়াচ্ছে। সারা বিশ্বের মতো ভারতবর্ষও এই চিন্তার হাত থেকে মুক্তি পাচ্ছে না। বিগত কয়েকদিনে ভারতবর্ষে বেশকিছু নতুন কেস খুঁজে পাওয়া গিয়েছে যা থেকে তৃতীয় ঢেউ সম্পর্কে নিশ্চিত হচ্ছেন চিকিৎসকরা। দ্বিতীয় ঢেউ আসার আগেও এই ধরনের ট্রেন্ড লক্ষ্য করা গিয়েছিল বলে জানাচ্ছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। তাই এখন থেকেই সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিচ্ছেন তারা। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, আগামী ১২৫ দিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রমাণিত হতে চলেছে।

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের থেকে এই সতর্কবাণী পেয়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও রাজ্যগুলিকে সতর্ক করেছেন। সংক্রমণ ঠেকাতে করোনা সতর্কতা বিধি মেনে চলার উপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে প্রতিটি রাজ্যকে সতর্ক করে বলা হয়েছে যে আগামী ১২৫ দিন করোনা সতর্কতা বিধি মেনে চলতেই হবে। তা না হলে দ্বিতীয় ঢেউয়ের থেকেও ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ করতে পারে তৃতীয় ঢেউ।

নীতি আয়োগের সদস্য ডা. ভি কে পাল জানিয়েছেন সংক্রমণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হলে এখন থেকেই প্রচেষ্টা শুরু করে দিতে হবে। করোনার বিরুদ্ধে এখনও আমরা শক্তপোক্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারিনি বলে জানিয়েছেন তিনি। নতুন করে সংক্রমণ জাঁকিয়ে বসতে পারে আমাদের শরীরে। সংক্রমণের এই হার ঠেকাতেই হবে। গত কয়েকদিনে যে ক’জনের নতুনভাবে আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলেছে তাদের মধ্যে থেকে ৮০ শতাংশের শরীরের নতুন কেস পাওয়া গিয়েছে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ এর ভয়াবহতা বিবেচনা করে শুক্রবার তামিলনাড়ু, অন্ধ্রপ্রদেশ, ওড়িশা, কর্নাটক, মহারাষ্ট্র, কেরলের মুখ্যমন্ত্রীদের সঙ্গে বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সংক্রমণ এড়াতে রাজ্যগুলিকে এখন থেকেই তৈরি থাকার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রীর এদিন বলেন, বর্তমানে ভারতবর্ষে এমন এক পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে যেখানে করোনার তৃতীয় ঢেউয়ের সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তাই যে সকল রাজ্যে সংক্রমণের হার বেশি, তাদের আরো সতর্ক হতে হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।