19 টি বিষাক্ত ট্যারেন্টুলা এবং আস্ত একটি সাপ রেখে ভাড়া বাড়ি ছাড়লেন ভাড়াটিয়া! হতবাক মালিক

30
19 টি বিষাক্ত ট্যারেন্টুলা এবং আস্ত একটি সাপ রেখে ভাড়া বাড়ি ছাড়লেন ভাড়াটিয়া! হতবাক মালিক

বাড়িওয়ালা-ভাড়াটে লড়াইয়ের কথা তো আজকের নয়। তবে এবার যা কান্ড ঘটল তাতে অনেক বাড়িওয়ালারই চোখ কপালে ওঠার মতো অবস্থা৷ ভাড়াটে বাড়ি ছেড়ে চলে যাওয়ার কয়েকদিন বাদে সেখানে উপস্থিত হন বাড়িওয়ালা। তারপর তিনি যা দেখলেন তাতে তার প্রাণ যায় যায় অবস্থা৷ কারণ ভাড়াটে বাড়ি খালি করে চলে গিয়েছেন ঠিকই, কিন্তু ছেড়ে গিয়েছেন এক ডজনেরও বেশি বিষাক্ত ট্যারেন্টুলা এবং আস্ত একটি সাপ। ই সব দেখে প্রাণভয়ে কাঁপতে লাগলেন বাড়িওয়ালা৷ স্থানীয় বন্যপ্রাণী উদ্ধার কেন্দ্রে ফোন করেন তিনি৷ চান সাহায্য৷ যাতে তারা এসে এই সব জন্তু তার বাড়ি থেকে উদ্ধার করেন, সেই অনুরোধও জানান তিনি৷

এই মারাত্মক ঘটনাটি ঘটেছে মার্কিন মুলুকের মেইনের আউবার্নের৷ ১৯টি ট্যারেন্টুলা এবং ১টি সাপ দেখে খুব স্বাভাবিকভাবে ভয়ে আঁতকে ওঠেন তিনি৷ তারপর বন্যপ্রাণী উদ্ধার কেন্দ্রে ফোন করায় সেখান থেকে আসেন ড্রুই দেসজারদিন আসেন পশু উদ্ধারের কাজে৷ সেখানে এসে তিনি দেখেন, ১৯টির মধ্যে ৪টি ট্যারেন্টুলা মরে গিয়েছে৷ সাপটির শরীরেও জল না থাকায় সেও অচৈতন্য অবস্থাতেই রয়েছে৷ এদের উদ্ধার করে নিজের বাড়িতে নিয়ে আসেন দেসজারদিন৷ জানা গিয়েছে, উদ্ধার হওয়া পশুরা আপাতত সুস্থ রয়েছে।

পশুগুলোকে উদ্ধার করার পর দেসজারদিন সেইসব ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করায় ঘটনাটি জানাজানি হয়েছে এবং তার ফলে এলাকার অনেক মানুষ আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন৷ এমনকী ছবিগুলো সোশ্যাল মিডিয়ায় যথেষ্ট ভাইরাল হয়েছে।

তবে একটি আন্তার্জাতিক সংবাদ সংস্থার পক্ষে থেকে জানানো হয়েছে যে মেইন এলাকায় এই সব পশু খোলা অবস্থায় ছেড়ে রাখা নিষিদ্ধ৷ তা একরকমের অপরাধ৷ তাহলে কীভাবে ভাড়াটে এদের জোগাড় করল এবং ঘরের মধ্যে লুকিয়ে রাখল, তার তদন্ত চলছে।