সহযোগিতা করছে রাজ্যের স্থানীয় পুলিশ এবং প্রশাসনঃ সিআরপিএফ প্রধান

9
সহযোগিতা করছে রাজ্যের স্থানীয় পুলিশ এবং প্রশাসনঃ সিআরপিএফ প্রধান

পশ্চিমবঙ্গের আসন্ন একুশের বিধানসভা নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার উদ্দেশ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনীর উপরেই সমস্ত দায়িত্ব ভার অর্পণ করেছে নির্বাচন কমিশন। রাজ্য পুলিশের এক্ষেত্রে কোনো ভূমিকাই থাকবে না। রাজ্য শাসকদলের তরফ থেকে অবশ্য কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই পক্ষপাতিত্ব মূলক আচরণের অভিযোগ আনা হয়েছে। তবে কেন্দ্রীয় বাহিনীর তরফে রাজ্যের জন্য অবশ্য কোনো অভিযোগ নেই বলেই জানা গেল।

সিআরপিএফের ডিজি কুলদীপ সিংহ সম্প্রতি একটি সাংবাদিক বৈঠকে জানালেন, রাজ্যের স্থানীয় পুলিশ এবং প্রশাসন এ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় বাহিনীকে সব রকম ভাবে সাহায্য করছে। উভয় তরফের সমন্বয় সাধনে কাজ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রসঙ্গত রাজ্যে প্রথম দফার বিধানসভা নির্বাচনের আগেই ৭২৫ কোম্পানির আধা সামরিক বাহিনী রাজ্যে পৌঁছে গিয়েছে।

সিআরপিএফের প্রধান জানিয়েছেন, ভোটের আগে রাজ্যের স্পর্শকাতর এলাকাগুলিতে টহলদারি বাড়ানো, রাজনৈতিক সন্ত্রাস রোখা, ভোটারদের মনে আস্থা বাড়াতেই কেন্দ্রীয় বাহিনীকে আগে থেকে মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। তিনি আরো জানিয়েছেন, এর আগে ভোটের সময় কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হলেও স্থানীয় প্রশাসন তাদের কাজে বাধা প্রদান করতো। এই দফায় তেমনটা হচ্ছে না বলেই তিনি জানিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, করোনা অতিমারির দরুন সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন সম্পন্ন করতে চলতি দফায় পশ্চিমবঙ্গে ২৩ হাজার ভোট কেন্দ্র বাড়ানো হয়েছে। ৭২৫ কোম্পানি আধা সেনার মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে ইতিমধ্যেই ৪৯৫ কোম্পানির সেনা পৌঁছে গিয়েছে। বাকি বাহিনী শীঘ্রই পশ্চিমবঙ্গে প্রবেশ করবে বলে জানিয়েছেন সিআরপিএফ প্রধান।