পুরভোট পিছানোর আর্জি জানালো রাজ্য সরকার

20
পুরভোট পিছানোর আর্জি জানালো রাজ্য সরকার

বাংলায় করোনা পরিস্থিতি ক্রমবর্ধমান। বর্তমান পরিস্থিতিতে পুরভোট হলে তা সাধারণ মানুষের জন্য বিপদ স্বরুপ। বিরোধীরা এই নিয়ে বারবার রাজ্যের কাছে প্রশ্ন তুলেছিল। অবশেষে পুরভোট পিছানোর দাবি মেনে নির্বাচন কমিশনের কাছে আর্জি জানিয়ে দিল রাজ্য সরকার। বকেয়া পুরভোট দুই সপ্তাহের জন্য পিছিয়ে দেওয়ার জন্য আর্জি জানানো হয়েছে কমিশনের কাছে।

আগামী 22 শে জানুয়ারি বিধান নগর, আসানসোল, শিলিগুরি এবং চন্দননগরে ভোট হওয়ার কথা ছিল। আপাতত তাই প্রস্তুতি এবং প্রচার তুঙ্গে। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে করোনা বিধিনিষেধ মেনে প্রচার হচ্ছে না বলে অভিযোগ উঠেছিল। বর্তমানে তাই ভোট পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে রাজ্য সরকার। করোনা পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনায় পরে রাজ্য সরকার এই পদক্ষেপ নিচ্ছে।

শুক্রবার হাসপাতাল থেকে ছুটি পেয়ে বিজেপির রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন এই সময়ে নির্বাচন করা ঠিক হবে না তা বিজেপি এর আগেও বলেছিল। নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়ার জন্য কোর্টের আরও কড়া নির্দেশ প্রয়োজন। তবে সবকিছুই এখন কমিশনের ঘাড়ে ফেলে দেওয়া হলো। তবে শুধু বিজেপি নয়, বিজেপি পাশাপাশি অন্যান্য বিরোধী দলগুলোও নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়ার পক্ষে রায় দিয়েছে।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের মতে, বর্তমান পরিস্থিতি খতিয়ে দেখে এবং বিরোধীদের বিরোধিতার মুখে পড়ে রাজ্য সরকার নড়েচড়ে বসেছে। সরকার এবার অন্তত পক্ষে দুই সপ্তাহ ভোট পিছিয়ে দেওয়ার আর্জি জানিয়েছে।