মিড-ডে-মিল কর্মীদের ভাতা সম্পর্কে আশঙ্কা দূর করলো রাজ্য সরকার

10
মিড-ডে-মিল কর্মীদের ভাতা সম্পর্কে আশঙ্কা দূর করলো রাজ্য সরকার

মিড ডে মিল কর্মীদের জন্যেও বিশেষ সুযোগ-সুবিধা নিয়ে হাজির পশ্চিমবঙ্গ সরকার। পূর্ব নিয়ম অনুসারে কেবল দশ মাস নয়, এবার থেকে বারো মাসই সরকারের তরফ থেকে ভাতা পাবেন মিড-ডে-মিল কর্মীরা। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, বিগত প্রায় এক বছর ধরে স্কুল বন্ধ থাকার দরুন মিড-ডে-মিল কর্মীরা তাদের ভাতা সম্পর্কে বেশ আশঙ্কায় ছিলেন। এবার তাদের সেই আশঙ্কা দূর করলো রাজ্য সরকার।

করোনার কারণে গত বছরের মার্চ মাস থেকেই সমস্ত বিদ্যালয় বন্ধ। স্বাভাবিকভাবেই সরকারি বিদ্যালয়গুলির মিড-ডে-মিল পরিষেবাও এতদিন বন্ধই ছিল। তবে মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে অবশ্য বিদ্যালয়ের প্রত্যেক ছাত্র-ছাত্রীকে মিড ডে মিলের চাল এবং ডাল সরবরাহ করা হয়েছে। তবে বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় এতদিন মিড-ডে-মিল কর্মীদের তেমন কোনো কাজই ছিল না।

ফলে স্বভাবতই মিড ডে মিল কর্মীদের মনে আশঙ্কা দেখা দেয়, তাদের ভাতা হয়তো বন্ধ হয়ে যেতে পারে। তবে রাজ্য সরকারের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, তাদের ভাতা বন্ধ হচ্ছে না। উপরন্তু আগে যেখানে তারা বছরে দশ মাস ভাতা পেতেন, এখন সারা বছরই সেই ভাতা পাবেন। বুধবার স্কুল শিক্ষা দপ্তরের তরফ থেকে একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে এমনটাই জানানো হয়েছে।

আগে গ্রীষ্মের ছুটি এবং পূজার ছুটি উপলক্ষে মিড ডে মিল কর্মীদের ভাতা বন্ধ থাকতো। এবার সারাবছর ভাতা পাবেন মিড ডে মিলের কর্মচারীরা। বঙ্গীয় প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, মিড-ডে-মিল কর্মচারীদের বারো মাস ভাতা প্রদানের দাবি এতদিনে পূরণ হলো। এবার তারা মিড-ডে-মিল কর্মীদের দুবেলা খাদ্য সামগ্রী প্রদানের দাবি জানাচ্ছেন।