গালোয়ানে চিনা সৈনিকের মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে চাঞ্চল্যকর দাবি অস্ট্রেলিয়ান সংবাদপত্রে!

12
গালোয়ানে চিনা সৈনিকের মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে চাঞ্চল্যকর দাবি অস্ট্রেলিয়ান সংবাদপত্রে!

২০২০ সালে গালোয়ান উপত্যকায় ভারতীয় সেনা ও চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মি সংঘর্ষ জড়িয়েছিল। সেই সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছিলেন চিনা সৈনিক। শহিদ হয়েছিলেন বহু ভারতীয় সেনা জওয়ান। এই সংঘর্ষে চিনা সৈনিকের মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন অস্ট্রেলিয়ার এক সংবাদপত্রের সাংবাদিক।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, অস্ট্রেলিয়ার সংবাদপত্র ‘দ্য় ক্ল্যাক্সন’এর একটি তদন্তমূলক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে ২০২০ সালের গালোয়ান সংঘর্ষে চিনের তরফে অনেকটাই ক্ষতি হয়েছে। এই প্রতিবেদন বলা হয়েছে, গালোয়ান সংঘর্ষে চিনের সরকারের তরফে যে সংখ্যক চিনা সেনার প্রাণ হারানোর তথ্য দেওয়া হয়েছিল তা মিথ্যে। চিনের সরকারের তরফে প্রকাশিত মৃতের সংখ্যার থেকে আরও বেশি সংখ্যক চিনা সেনা প্রাণ হারিয়েছিলেন সেই সংঘর্ষে।

প্রসঙ্গত, গালোয়ান সংঘর্ষে চিন মৃতদের সঠিক সংখ্যা প্রকাশ না করলেও চারজন চিনা সেনাকে মরণোত্তর মেডেল দিয়েছে। তবে অস্ট্রেলিয়ার সেই সংবাদপত্রের দাবি, চিনের ৩৮ জন সেনা গালোয়ান উপত্যকায় প্রাণ হারিয়েছিলেন। এই তদন্তের জন্য ‘দ্য় ক্ল্যাক্সন’ নিজেদের একটি সোশ্যাল মিডিয়া টিম গঠন করেছিল।

সেই সোশ্যাল মিডিয়া গবেষকরা খুঁজে বের করেছেন যে ৪ জনের বেশি চিনা সেনা প্রাণ হারিয়েছেন। বেজিংয়ের তরফে কেবলমাত্র চারজন সেনাকেই সংঘর্ষে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়েছিল। এই গবেষণার ফলাফলের উপর ভর করেই অস্ট্রেলিয়ার সংবাদপত্রে “গালোয়ান ডিকোডেড” শিরোনামে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ পেয়েছে। এই প্রতিবেদন লেখার জন্য এক বছরেরও বেশি সময় ধরে তথ্য় সংগ্রহ করা হয়েছে। চিনের কিছু ব্লগারের, নাগরিক এবং সংবাদ মাধ্যমের বিভিন্ন প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে। তবে বেজিংয়ের তরফে এই প্রতিবেদনগুলো মুছে দেওয়া হয়েছিল।

এই তদন্তে দাবি করা হয়েছে, জুনের প্রথম দিকে, ১৫-১৬ জুন নাগাদ অনেক চিনা সেনা দ্রুত প্রবাহিত গালোয়ান নদীতে সাঁতার কাটতে গিয়ে মারা গিয়েছিলেন।