ছোট্ট খুদে’র বুদ্ধির জেরে দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল শিয়ালদহগামী ক্যানিং লোকাল

25
ছোট্ট খুদে'র বুদ্ধির জেরে দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল শিয়ালদহগামী ক্যানিং লোকাল

বড়সড় দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পেল শিয়ালদহগামী ক্যানিং লোকাল। তাও মাত্র সাত বছর বয়সী এক খুদের উপস্থিত বুদ্ধির জোরে। ক্লাস টু তে পড়া ওই ছোট্ট খুদে রেল লাইনে ফাটল দেখে তোর মাকে গিয়ে খবর দেয়। ছোট্ট ওই শিশুটির নাম দ্বীপ নস্কর। তার মা সোনালী নস্কর বিষয়টির গুরুত্ব বুঝতে পেরে দ্রুত প্রতিবেশী মহিলাদের খবর দেন এবং তারা সকলে মিলে লাল কাপড় দেখিয়ে শিয়ালদহ ক্যানিং লোকাল ট্রেনটিকে আটকাতে সমর্থ হন।

শিয়ালদহগামী ক্যানিং স্টাফ স্পেশ্যাল ট্রেনের চালকের নজরে মহিলাদের লাল কাপড় দেখানো বিপদ সংকেত পড়ে এবং বিপদ বুঝে তারা ট্রেনটিকে আটকে দেন। শিয়ালদহের ডিআরএম এসপি সিং জানিয়েছেন লাইনে আগের থেকে ওয়েলডিং ছিল। সেই ওয়েল্ডিং খুলে যাওয়াতে বড়োসড়ো বিপদের সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছিল। তবে ওই ছোট্ট শিশুটির চোখে তা ধরা পড়ায় আগেভাগে ব্যবস্থা নিয়ে বিপদ এড়ানো সম্ভব হয়েছে।

বড়োসড়ো ট্রেন দুর্ঘটনার হাত থেকে ট্রেনটিকে রক্ষা করা সম্ভব হয়েছে ওই শিশুটির জন্যই। তাই তাকে পুরস্কৃত করার কথা ভাবছে রেল কর্তৃপক্ষ। ওই শিশুটির পরিবারের হাতে ৫ হাজার টাকা পুরস্কার তুলে দেওয়ার কথা ভাবা হয়েছে। শিশুটি যে কাজটি করেছে তার জন্য তাকে উৎসাহ দিতেই এই পুরস্কার তার হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানানো হয়েছে। পূর্ব রেলের তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে সোমবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ স্থানীয় মুকুন্দপুরের বাসিন্দাদের প্রচেষ্টায় বড়োসড়ো ট্রেন দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে।

দীপ নস্কর এদিন সময় থাকতেই লাইনের বড়সড় ফাটলটি লক্ষ্য করে। লাইনে ফাটল থাকলে ট্রেন উল্টে যেতে পারে, একথা তার জানা ছিল। তাই সে সত্বর তার মাকে ঘটনাটি জানায়। ছেলের মুখে এই খবর শুনে দ্রুত ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন দ্বীপ নস্করের মা। তিনি আশেপাশের মহিলাদের জোগাড় করে প্রত্যেক বাড়ি থেকে লাল কাপড় নিয়ে রেললাইনে উঠে বিপদ সংকেত দেখাতে থাকেন। যার জেরে প্রাণে বেঁচেছেন বহু মানুষ।