নিয়মগুলি মানতেই হবে রাস্তায় বেরোলে, নাহলেই পরবেন বিপদে

9
নিয়মগুলি মানতেই হবে রাস্তায় বেরোলে, নাহলেই পরবেন বিপদে

‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইভ’ এই উক্তিটি আমরা সকলেই জানি কিন্তু কটা মানুষ মানি! রাস্তায় বেরোলে অর্ধেকের বেশি বাইক আরোহীর মাথায় হেলমেট দেখতে পাওয়া যায়না। অনেকে তো আবার বাচ্চা নিয়েও যাচ্ছেন তাদের মধ্যেও সচেতনতা দেখতে পাওয়া যায়না। আর এইভাবে কত শত মানুষকে রোজ দুর্ঘটনার শিকার হতে দেখছি আমরা। বছরে প্রায় হাজার হাজার মানুষ মারা যায় এই বাইক দুর্ঘটনায় একটু গাফিলতির কারণে।

তাই প্রশাসন এবার একটু কঠোর হয়েছেন। জানা যাচ্ছে এই বছর বাড়তি সতর্কতা নিচ্ছেন প্রশাসন। এমনকি নিজের ছোটো খাটো ভুলে ড্রাইভিং লাইসেন্স বাতিল অবধি করা হতে পারে। তাই জেনে নিন কি কি নিয়ম মানতেই হবে রাস্তায় বেরোলে। রাস্তায় বাইক নিয়ে বেরিয়ে উপযুক্ত কাগজ পত্র না দেখতে পারলেই জরিমানা করা হবে।
সম্প্রতি ওড়িশায় গত দু’সপ্তাহ ধরে একটি বিশেষ অভিযান চালানো হচ্ছে। উল্লেখযোগ্যভাবে ওই সময়ে ১২ হাজারেরও বেশি ড্রাইভিং লাইসেন্স স্থগিত করা হয়েছে এবং ৬০ লক্ষ টাকার বেশি জরিমানাও আদায় করা হয়েছে।

স্টেট ট্রান্সপোর্ট অথরিটির আধিকারিকরা গত ১৬ অগাস্ট থেকে ৩০ অগাস্ট পর্যন্ত জাতীয় ও রাজ্য মহাসড়কে হেলমেট ছাড়া বাইক আরোহীদের জন্য মোট ২৪,৪৭৪ টি ই-চালান জারি করেছেন। এই প্রসঙ্গে একজন আধিকারিক জানিয়েছেন যে, লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানোর জন্য মোট ৮৮৮ টি গাড়িও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। যতদিন যাচ্ছে দুর্ঘটনা বেড়েই চলেছে তাই এতটা কঠোর হয়েছেন প্রশাসন। ফাঁকিবাজির কোনো ক্ষমা হবে না বলে জানা যাচ্ছে।

আধিকারিকরা বলছেন দেশে হেলমেট ছাড়া গাড়ি চালানোর জন্যই বেশি দুর্ঘটনা ঘটে তাই হেলমেট বাধ্যতামূলক। গত বছর প্রায় ১,৩০৮ জন মানুষ হেলমেট না পড়ার কারণে মারা গেছেন তাই হেলমেটের ওপরই বেশি জোর দেওয়া হচ্ছে। এই প্রসঙ্গে এসটিএ তরফ থেকে জানা যায় যে, “এসটিএ-এর দলটি জরিমানা বাবদ মোট ৬৩.৯৮ লক্ষ টাকা সংগ্রহ করেছে এবং হেলমেট ছাড়া বাইক চালানোর জন্য ১২,৫৪৫ টি লাইসেন্স স্থগিত করা হয়েছে।”
তাই শুধু প্রশাসনের ভয়ে নয় নিজের সুরক্ষার কথা ভেবেই সমস্ত নিয়ম মেনে তবেই বাইক চালান। নিজেও সুস্থ থাকুন পরিবারকেও বিপদমুক্ত রাখুন।