হারের আসল কারন পর্যালোচনা করবে দলঃ কৈলাস বিজয়বর্গীয়

22
হারের আসল কারন পর্যালোচনা করবে দলঃ কৈলাস বিজয়বর্গীয়

আজ সকাল থেকে একুশের যে নির্বাচনী কাউন্টিং শুরু হয়েছে, তার আংশিক ফলাফল প্রকাশ পেতেই তৃণমূলের জয় সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে। বিজেপির সকল রাজনৈতিক সমীকরণ, তরজা, চর্চাকে ভুল প্রমাণ করে তৃতীয় বারের মতো ফের ক্ষমতায় আসতে চলেছে তৃণমূল। বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্বরা যেখানে ২০০ আসন পেয়ে সরকার গঠনের স্বপ্ন দেখছিলেন, তারা আজ কার্যত হার স্বীকার করেই নিলেন।

বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় এদিন ভোটের ফলাফল দেখে কার্যত আগেভাগেই হার স্বীকার করে নিলেন সংবাদ মাধ্যমের সামনে। রবিবার দুপুরে তিনি বলেন, ট্রেন্ড দেখে মনে হচ্ছে বাংলার মানুষ মমতাদিকে ফের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে দেখতে চেয়েছেন। তবে এখনই হাল ছাড়ছেন না তিনি। তিনি বলেন, সন্ধ্যা পর্যন্ত অপেক্ষা করবে বিজেপি।

তবে বাংলায় বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক এই ভেবে বেশ স্বস্তিতে রয়েছেন যে গতবার বিধানসভা নির্বাচনে ৩টে আসনে জিতেছিল বিজেপি। সেই জায়গায় আজ অনেকটাই এগোতে পেরেছে তারা। ফলাফল নিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের সঙ্গে কথা হয়েছে কৈলাস বিজয়বর্গীয়। তিনি তাকে বাংলার ফলাফল জানিয়েছেন।

বাংলায় এই দফায় অনেকের হারে আশ্চর্য বোধ করছেন বিজেপি নেতা। বিশেষত বাবুল সুপ্রিয়, লকেট চট্টোপাধ্যায়, রাহুল সিনহার মতো হেভিওয়েট নেতা পিছিয়ে পড়াতে আশ্চর্য হয়েছেন তিনি। এমন খারাপ ফলের কারণ হিসেবে “দিদির পায়ে চোট লাগার আবেগ” এবং “বহিরাগত ইস্যু”ও কাজ করতে পারে বলে মনে করছেন তিনি। এই অপ্রত্যাশিত ফলাফলের কারণ বিশ্লেষণ করে দেখবে বিজেপি। এমনটাই জানিয়েছেন কৈলাস বিজয়বর্গীয়।