অস্বাভাবিক হারে বেড়েই চলেছে সবজি সহ পেঁয়াজের দাম

7
অস্বাভাবিক হারে বেড়েই চলেছে সবজি সহ পেঁয়াজের দাম

করোনা অতিমারীর জেরে উত্তরোত্তর বেড়েই চলেছে বাজার দর। সবজি বাজারে গিয়ে রীতিমতো কালঘাম ছুটছে মধ্যবিত্তের। আমিষ বাজারেরও একই অবস্থা। তবে ক্রম বর্ধমান বাজার দরের হাত থেকে এখনই মুক্তি পাচ্ছেন না সাধারণ মানুষ। সদ্যই বাঙালি তাদের সব থেকে বড় উৎসব দুর্গোৎসব নিয়ে মেতে উঠেছিল। উৎসবের দিনগুলিতেও বাজারে গিয়ে রীতীমতো কালঘাম ছুটেছে বাঙালির।

দুর্গোৎসব এরপর এবার লক্ষী পূজা এবং কালী পূজার আয়োজনে মেতে উঠেছে বাঙালি। বাঙালির কাছে উৎসব মানেই ভুরিভোজ। কিন্তু বাজারে গিয়ে খাদ্য রসিক বাঙালির হাতে রীতিমতো ফোস্কা পড়ার জোগাড়। বিশেষ করে পেঁয়াজের দাম বাড়তে বাড়তে সেঞ্চুরি ছুঁয়ে ফেলার জোগাড়। দশমীর পর থেকেই পেঁয়াজের দামের ঝাঁঝে বাঙালীর চোখে রীতিমতো জল আসার জোগাড়।

উৎসবের আগে থেকেই অবশ্য অন্যান্য সকল সবজির মতো পেঁয়াজের দামও বেড়েছিল। উৎসবের দিন গুলিতেও গ্রাহককে প্রতি কেজি ৮০-৯০ টাকা কিলো দরে পেঁয়াজ কিনতে হয়েছে। কিন্তু এবার প্রতি কেজি পেঁয়াজের দাম আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছেন মধ্যবিত্ত বাঙালি। কলকাতার এক বাসিন্দার দাবি, পেঁয়াজের যা দাম, তাতে অদূর ভবিষ্যতে নিরামিষাশী হওয়া ছাড়া উপায় নেই।

বাজার ফেরত যে কোনো ব্যক্তির মুখেই একই কথা শোনা যাচ্ছে। সকলেই দাবি তুলছেন, অবিলম্বে পিঁয়াজের দাম কমানোর ব্যবস্থা করুক সরকার। নতুবা সাধারণ মানুষ ভোগান্তির একশেষ হবেন। উল্লেখ্য, করোনা মহামারীর জেরে লকডাউনের সময়কাল থেকেই নিত্যপ্রয়োজনীয় আলু-টমেটো-কাঁচা লঙ্কার দাম অস্বাভাবিক হারে বেড়েছে। এমতাবস্থায় পেঁয়াজের দামের ঝাঁঝেও বাঙালীর চোখে জল আসছে।