২০২২ সাল নিয়ে নস্ট্রাদামুসের ভবিষ্যৎবাণী উদ্বেগ বাড়াচ্ছে সকলের

8
২০২২ সাল নিয়ে নস্ট্রাদামুসের ভবিষ্যৎবাণী উদ্বেগ বাড়াচ্ছে সকলের

আমাদের দেশে ও দেশের বাইরে এমন বহু দার্শনিক ও ভবিষ্যৎ নিয়ে বিভিন্ন বাণী দেন এমন বহু মানুষ ছিলেন বা রয়েছেন যাদের গণনা প্রায় অধিকাংশই মিলে যায়। বহু মানুষ এই ব্যাক্তিদের বাণী মনে প্রাণে বিশ্বাস করেন। আর এবার সেরকমই আরো একটি বানী নিয়ে সকলের চিন্তা বাড়াচ্ছে।

সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে যে, বিখ্যাত ফরাসি ভবিষ্যদ্বক্তা নস্ট্রাদামুস বহু যুগ আগেই তিনি তাঁর “লে প্রফেসি” নামের একটি বইতে বিশ্ববাসীর জন্য একাধিক ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন। যার বেশিরভাগই সত্যি হয়ে গিয়েছিল। তিনি প্রায় ৩,৯৯৭ সাল পর্যন্ত ভবিষ্যদ্বাণী করে গিয়েছেন। আর এখনও অবদি তার ৮০০ টা বাণী সত্যি হয়েছে।

অন্যান্য দেশের মতো ভারত নিয়েও অনেক ভবিষ্যৎবাণী করেছেন তিনি। যা আজ অব্দি প্রায় সবই সত্য প্রমাণিত হয়েছে। রাজিব গান্ধী ও ইন্দিরা গান্ধীর ডেথ নিউজ থেকে শুরু করে নরেন্দ্র মোদীর প্রধান মন্ত্রী হওয়া সবই বলে গেছেন তিনি। আর নস্ট্রাদামুসের এই ভবিষ্যৎবাণী গুলি নিয়ে অনেকেই গবেষণা করেছেন এবং তারা জানিয়েছেন যে সত্যি তিনি এমন মন্তব্য করেছিলেন।

আর এইবার অর্থাৎ এই বছর ২০২২ সাল নিয়েও এক বিস্ফোরক ভবিষ্যৎবাণী সামনে আসছে। যা সত্যি উদ্বেগ বাড়াচ্ছে সকলের। কারণ নস্ট্রাদামুসের ভবিষ্যৎবাণী অনুযায়ী জানা যাচ্ছে যে, এই বছর নাকি বিশ্বে একটি পারমাণবিক বোমা বিস্ফোরিত হতে চলেছে। যা পৃথিবীর অবস্থা বদলে দেবে এবং কোটি কোটি মানুষ বিশ্ব উষ্ণায়নের কবলে পড়বে।
ক্ষতিগ্রস্ত হবে একাধিক দেশ। অনাহারের কবলে পড়তে পারে অনেক গুলো দেশ। তিনি এও বলেন যে, ” তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ প্রায় ৭ মাস স্থায়ী হবে। যার ফলে লক্ষ লক্ষ মানুষ মারা যাবেন। নস্ট্রাদামুসের মতে, এই বিশ্বযুদ্ধে পৃথিবীর অনেক দেশের অস্তিত্বও শেষ হয়ে যেতে পারে।”

আর এই নিয়েই সকল বিশ্ব উদ্বিঘ্ন। কারণ খাদ্যের অভাব ইতিমধ্যেই দেখা দিয়েছে নানা দেশে। শ্রীলঙ্কায় এখনই চালের দাম অকল্পনীয়। আবার রুশ – ইউক্রেনের যুদ্ধের কারণে গম উৎপাদনকারী প্রধান দেশ ইউক্রেন সাংঘাতিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত। গম সরবরাহ করতে পারছে না। একাধিক বেকারী বন্ধ। এমত অবস্থায় গম উৎপাদনে দ্বিতীয় দেশ ভারতের উপর অনেক দেশ নির্ভরশীল। কিন্তু এই বছর ভারতেও উৎপাদন আগের তুলনায় অনেক কম হয়েছে যা চিন্তা বাড়াচ্ছে।

শুধু তাই নয় ফরাসি ভবিষ্যদ্বক্তা নস্ট্রাদামুস ছাড়াও বাবা ভাঙ্গা বলে একজন বুলগেরিয়ার ভবিষ্যদ্বক্তা সেও একই রকম ভবিষ্যৎবাণী করেন। তিনি বলেন, ২০২২ সালে ভারত সহ একাধিক দেশে পঙ্গপালের প্রাদুর্ভাব হতে পারে। যা ফসলকে ধ্বংস করে দেবে। এদিকে, এর ফলে ভারতে অনাহার ও দুর্ভিক্ষের মতো পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলেও জানান তিনি।
তাই খুব তাড়াতাড়ি কি আবারও দুর্ভিক্ষের সন্মুখীন হতে চলেছে বিশ্ব সে নিয়ে সকলেই চিন্তিত। দেখা যাক শেষ অবধি কি অপেক্ষা করে আছে আমাদের জন্য।