খোলা আকাশই বাড়ির ছাদ! বাপ মেয়েতে ঘুমিয়ে পড়েন গাছের ছায়ায়! জানুন তাদের জীবন কাহিনী

10
খোলা আকাশই বাড়ির ছাদ! বাপ মেয়েতে ঘুমিয়ে পড়েন গাছের ছায়ায়! জানুন তাদের জীবন কাহিনী

প্রত্যেকটা বাবার কাছেই তার মেয়েরা রাজকন্যার সমতুল্য। রাজা না হয়ে থাকলেও সেই বাবা সবসময় চেষ্টা করে তাদের কন্যা সন্তানকে রাজকুমারীর মত রাখতে। ছাদ নেই চারটে দেয়াল নেই মাঝে মাঝে খোলা আকাশে বাড়ির ছাদ বাপ মেয়েতে ঘুমিয়ে পড়েন গাছের ছায়ায়। সারারাত ধরে মেয়েকে বড় করবে বলে ক্লান্ত হয়ে বেলুন বিক্রি করে বেড়ায়।

গোটা রাত জুড়ে ক্লান্ত ধৈর্যশীল সেই বাবার একটাই উদ্দেশ্য, তার পাঁচ বছরের রাজকন্যাকে বড় করবেন, মানুষের মত মানুষ করবেন, পড়াশুনা করাবেন। ঘটনাটি চীনের হেনান প্রদেশের, যেখানে সারারাত ধরে বেলুন বিক্রি করে মেয়েকে মানুষ করবেন বলে।

পরিবার বলতে শুধুমাত্র তার মেয়ে। গোটা সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে রয়েছে তাদের জীবনযাত্রার গল্প। এই বিষয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করেছেন ওয়্যাং নামের এক ব্যক্তি। বর্তমানে সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল বাবা এবং মেয়ের গল্প।

ওয়্যাং জানিয়েছেন,” তিনি একদিন রাতে বাড়ি ফেরার সময় বেলুন কিনে ছিলেন। ওই ব্যক্তির থেকে বেলুন কিনতে গিয়ে তার সঙ্গে আলাপ হয়। মেয়েটি পরেছিল গলাপি রঙের একটা প্রিন্সেস গাউন হাতে ছিল তুলোর খরগোশ। বাবার গায়ে ছিল শর্ট প্যান্ট আর হাতা হীন একটি গেঞ্জি। জানা যায় মেয়ে মিলে সারারাত ধরে বেলুন বিক্রি করে বেড়ায় এবং তারপরে ভোর তিনটের পর ঘুমোতে যান। ঘুমান গাছের ছায়ায় চাদর পেতে। জিনিসপত্র বলতে একটি সুটকেস এবং সেই রয়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় কিছু জিনিসপত্র রয়েছে একটি চাদর এবং গায়ে দেওয়ার জন্য একটা সুতির কাঁথা। একটা ঠেলাগাড়ি যেটাই তাদের ঘর। এই খেলা গাড়ি রাতে সেজে ওঠে বেলুন দিয়ে। মেয়ের পায়ে ব্যথার জন্য ঠেলা গাড়িতে তুলে তাকে টেনে নিয়ে যান তিনি। মেয়েকে তিনি স্কুলে ভর্তি করেছেন এবং পড়াশুনার খরচ জোগানোটাই তার অনেক বড়ো দায়িত্ব”।