মদ সিগারেট খেয়েই ১০০ বছর উত্তীর্ণ করলেন এই বৃদ্ধ

27
মদ সিগারেট খেয়েই ১০০ বছর উত্তীর্ণ করলেন এই বৃদ্ধ

দেখতে দেখতে জীবনের ১০০ টা বসন্ত অনায়াসেই পার করে ফেলেছেন তিনি। শতবর্ষ উত্তীর্ণ এই নব্য যুবকের তেমন কোনো শারীরিক সমস্যা কিন্তু নেই। শুধু কানেই যা একটু কম শোনেন। বাদবাকি তার প্রতিটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ একদম ঠিকঠাকই কাজ করছে। কিভাবে পেলেন এই দীর্ঘ জীবন? কী রহস্য লুকিয়ে আছে তার পেছনে? কারণটা জানলে চক্ষু চড়কগাছ না হয়ে উপায় নেই। ১০০ বছর উর্ত্তীন্ন এই বৃদ্ধ তার দীর্ঘ জীবন লাভের দাওয়াই হিসেবে যথেচ্ছ মদ, সিগারেট ব্যবহার করে গেছেন!

শতবর্ষ উর্ত্তীন্ন এই বৃদ্ধ চীনের জিনজিন প্রদেশের বাসিন্দা। তার নাম ঝাং কেমিন। উদঘাটন করলেন তাতে বেশ অবাক হয়েছেন সকলে। কারণ, চিকিৎসকের পরামর্শ অনুযায়ী দীর্ঘ সুস্থ জীবন লাভ করতে গেলে মদ, সিগারেটের মত উপাদান এড়িয়ে যাওয়াই শ্রেয়। তার সাথে খাবারের পরিমাণেও সমতা বজায় রাখা উচিত। অর্থাৎ একটা বয়সের পর খাবার খেতে নিষেধ করেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা।

কিন্তু এই বৃদ্ধ সেসবের ধারও ধারেননি। তিনি তার সারা জীবনে যখন যা মন চেয়েছে তাই খেয়েছেন। যথেচ্ছ মদ্যপান করেছেন, সিগারেট টেনেছেন অগুনতি। কিন্তু তবুও তার শরীরে এতোটুকু প্রভাব পড়েনি। শতবর্ষ উত্তীর্ণ হয়ে গেলেও এখনো সমান সতেজ ঝাং কেমিন। সবথেকে অদ্ভুত বিষয়, এখনো দিনে এক প্যাকেট করে সিগারেট তার চাইই চাই। তবে মদ্যপানের ক্ষেত্রে কিছুটা সতর্ক হয়েছেন তিনি। বিশেষত ৯০ উত্তীর্ণ হয়ে যাওয়ার পরেই মদ খাওয়ার পরিমাণ কমিয়েছেন, তবে একেবারে বাদ দেননি।

জাগতিক সমস্ত নিয়মকানুনকে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে এখনো সুস্থ জীবনযাপন করছেন ঝাং কেমিন। পরিবারের পাঁচ প্রজন্মের সাক্ষী তিনি। পরিবার-পরিজনদের নিয়েই সুখে রয়েছেন ঝাং কেমিন। শর্ত একটাই, দিনে এক প্যাকেট সিগারেট, মদ্যপান। শুধু বৃষ্টির কাছেই যা একটু পরাজয় স্বীকার করেছেন এই বৃদ্ধ। বৃষ্টির দিন গুলিতে বাইরে বেরোন না। তখন তার সঙ্গী হয় সিগারেটের প্যাকেট মদের গ্লাস আর টিভি রিমোট। বাদ বাকি অন্যান্য দিন গুলিতে অনায়াসেই বাইরে বেরোতে পারেন ঝাং কেমিন।