পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির কারনে কমে যাচ্ছে বিভিন্ন রুটে বাসের সংখ্যা! ভোগান্তি বাড়বে নিত্যযাত্রীদের

11
পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির কারনে কমে যাচ্ছে বিভিন্ন রুটে বাসের সংখ্যা! ভোগান্তি বাড়বে নিত্যযাত্রীদের

প্রতিনিয়ত পাল্লা দিয়ে চড়ছে জ্বালানি তেলের দাম। অগ্নিমূল্য জ্বালানি ব্যবহার করে বাস এবং অন্যান্য যানবাহন চালাতে গিয়ে কার্যত রীতিমত হিমশিম খাচ্ছেন সাধারণ মানুষ। এমতাবস্থায় বিভিন্ন রুটে সরকারি এবং বেসরকারি বাস আগের তুলনায় অনেক কমে এসেছে। যার ফলে প্রতিদিন ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে নিত্যযাত্রীদের।

এই খবর পেয়েই কার্যত বৃহস্পতিবার সমস্ত রুটের বাস সংগঠনকে চিঠি দিল আরটিও। সেখানে জানতে চাওয়া হয়েছে কোন রুটে কত বাস চলছে এবং রাস্তায় কেন বাস নামছে না? এই বিষয়টিকে নিয়ে পরিবহন দপ্তরের অধিকর্তারা বৈঠক করেছেন বলেও জানা গেছে। বাস সংগঠনের মালিকদের দাবি টিকিট বিক্রি করে যে অর্থ উঠছে তাতে কার্যত বাস রুটে নামানো সম্ভব হচ্ছে না। তাই রাস্তায় কমে এসেছে বাসের সংখ্যা।

এদিকে আগামী সপ্তাহ থেকে বেসরকারি বাসের পাশাপাশি সরকারি বাসের সংখ্যা অনেকটাই কমে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন পরিবহন দপ্তরের আধিকারিকেরা। যে সকল রুটে যাত্রী চাহিদা কম থাকে সেই বাসগুলির সংখ্যা প্রায় কমে গিয়েছে বললেই চলে। দুপুর এবং রাতের দিকে বাস কম চলছে। তবে আগামী সপ্তাহে এই পরিস্থিতি আরো খারাপের দিকে যেতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বাস সংগঠনের দাবি শুধুমাত্র টিকিট বিক্রি করে তেল কেনার টাকা যোগান দেওয়া সম্ভব হচ্ছে না। শহরের রাস্তায় সরকারি বাসের সংখ্যা আগের তুলনায় অনেক কমে গিয়েছে। সিএসটিসি প্রথম ট্রিপে বাস নামছে 400। কিন্তু দ্বিতীয় ট্রিপে তা কমে অর্ধেক হয়ে গিয়েছে। এর কারণ হিসেবে কার্যত পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিকেই দায়ী করা হচ্ছে। যার ফল ভোগ করছেন নিত্যযাত্রীরা।