ফের নতুন উদ্দ্যগ শুরু হল দুয়ারে শিক্ষক কর্মসূচী

14
ফের নতুন উদ্দ্যগ শুরু হল দুয়ারে শিক্ষক কর্মসূচী

করোনা মোকাবিলা করার উদ্দেশ্যে এবার দুয়ারে হাজির শিক্ষক। মমতা সরকারের “দুয়ারে সরকার”, “দুয়ারে রেশন” পরিকল্পনা সম্পূর্ণ হিট। এবার সরকারের তরফের নতুন উদ্যোগ দুয়ারে শিক্ষক! না, দুয়ারে শিক্ষক মানে এই নয় যে শিক্ষকেরা এবার থেকে বাড়ি বাড়ি গিয়ে শিক্ষা প্রদান করে আসবেন। দুয়ারে শিক্ষক কথাটির অর্থ হলো, শিক্ষকেরা এবার থেকে করোনা যুদ্ধে মানুষের সঙ্গে সামিল। করোনাকালে তারা আর বাড়িতে বসে থাকতে চান না। তারাও মাঠে নেমে মানুষের সঙ্গে কাজ করতে চান।

পশ্চিমবঙ্গ তৃণমূল মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির জলপাইগুড়ি জেলা কমিটির উদ্যোগে জেলাজুড়ে করোনা আক্রান্ত মানুষদের কাছে পুষ্টিকর খাবার পৌঁছে দেওয়ার কর্মকাণ্ড শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়িতে দুয়ারে শিক্ষক কমিটির উদ্যোগে করোনা আক্রান্ত গরীব মানুষদের কাছে প্রোটিনসমৃদ্ধ খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এদিন কমিটির তরফ থেকে একটি বৈঠকের পর ওই জেলার নিম্নবিত্ত পরিবারের প্রতিটি মানুষের ঘরে ঘরে গিয়ে খাবার পৌঁছে দিয়েছেন শিক্ষক-শিক্ষিকারা।

এই খাদ্য সামগ্রীর মধ্যে ছিল চাল, মুসুরির ডাল, ছোলা, সোয়াবিন, দুধ, ডালিয়া, খেজুর, বিস্কুট এবং সাবান। জলপাইগুড়ি মধ্যশিক্ষা শিক্ষক সমিতির কনভেনার অঞ্জন দাস জানালেন, গোটা জলপাইগুড়ি জেলার ২৫টি ওয়ার্ডের অন্তত ৫০০ টিরও বেশি পরিবারের কাছে শুকনো পুষ্টিকর খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। এভাবেই কার্যত জলপাইগুড়ির শিক্ষক শিক্ষিকারাও করোনা লড়াইয়ের সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়ালেন।

প্রসঙ্গত, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার দুয়ারে রেশন প্রকল্পটিকেও বাস্তবায়নের পথে হাঁটছেন। এই মর্মে তিনি সংশ্লিষ্ট বিভাগকে নির্দিষ্ট নির্দেশ পাঠিয়ে দিয়েছেন। শীঘ্রই রাজ্যবাসীর ঘরে ঘরে রেশন পৌঁছানোর কাজ শুরু হয়ে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই করোনাকালে আর দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে রেশন সংগ্রহ করতে যেতে হবে না রাজ্যবাসীকে।