জিয়া খানের মৃত্যু রহস্য আজও অধরা! অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকীতে শোকপ্রকাশ পরিচালক রামগোপাল ভার্মার

6
জিয়া খানের মৃত্যু রহস্য আজও অধরা! অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকীতে শোকপ্রকাশ পরিচালক রামগোপাল ভার্মার

জিয়া খান ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখেন 2007 সালের রামগোপাল ভার্মার ছবি ‘নিঃশব্দ’ দিয়ে। আট বছর আগে সবাইকে চির বিদায় জানিয়ে চলে গিয়েছেন জিয়া খান। মাত্র 25 বছর বয়সেই নিজেকে এভাবে শেষ করে দেয়ার সিদ্ধান্ত কেন নিয়েছিলেন তিনি তা আজও নেটিজেনদের কাছে অজানা একটা রহস্যের মতনই। 2007 সালে তিনি ‘নিঃশব্দ’ সিনেমায় কিংবদন্তি অমিতাভ বচ্চনের সাথে জুটি বাঁধেন এবং তার অভিনয় সবার কাছে ভীষণ পছন্দের হয়েছিল। কিন্তু কি হলো? অকালেই ঝরে গেল তার এমন প্রতিভা।

সেই নিয়ে নিজের গানস অ্যান্ড থাইস বইতে তিনি অভিনেত্রী সম্পর্কে অনেক কিছুই লেখেন। পরিচালক লিখেছেন তিনি যখন জিয়া খানকে প্রথম দেখেন তখন তার মনে হয়েছিল যে সে একটি নিষ্পাপ এবং সেক্সি মেয়ে। তার প্রতিভা গগনচুম্বী ছিল। তার প্রথম ছবিতেই তিনি বুঝিয়েছেন যে দর্শকরা তার কাছ থেকে আরও কত ভালো ভালো ছবি উপহার পেতে পারেন। কিন্তু তার ক্যারিয়ার দীর্ঘস্থায়ী হলোনা।

পরিচালক আরো লিখেছেন যে তিনি যখন জিয়ার মৃত্যুর খবর শুনন তখন তিনি কেঁদেছিলেন। কিন্তু তিনি কখনওই জিয়ার অত কাছে আসেন নি। তিনি বলেন যে জিয়া খান চলচ্চিত্র জগতের শিল্পীদের মধ্যে একজন যিনি এই জগতের হতাশা গুলি এবং ব্যর্থতার মোকাবিলা করতে পারেননি। চলচ্চিত্র নির্মাতা তার টুইটার অ্যাকাউন্টে লেখেন যে নিঃশব্দ সিনেমায় বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জনের পরেও গজনী এবং হাউসফুল সিনেমা এ অংশগ্রহণকারী হওয়ার পরেও তাঁর হাতে তিন বছর ধরে কোনো কাজ ছিল না।

এর কারণ কি তা আমি জানি না। তবে জিয়া খান নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে এবং নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে ভীষণ হতাশ এবং দুশ্চিন্তায় ছিলেন। তিনি আরো লেখেন যে তার সাথে যখন জিয়ার শেষ সাক্ষাৎ হয়েছিল তখন জিয়া তাকে বলেছিলেন যে তাকে নাকি সবাই একজন ব্যর্থ মানুষের মতন দেখেন। তিনি একজন তরুণী এবং সুন্দরী। তিনি এখনো বিশ্বাস করে উঠতে পারেন না যে এত অল্প বয়স্ক একজন তরুণী সুন্দরী একজন প্রতিভাশালী শিল্পী এবং তার পরিপূর্ণ জীবনটা কিভাবে শেষ হয়ে যেতে পারে।
কি হয়েছিল জিয়ার সঙ্গে বিগ-বি থেকে শুরু করে আমির খানের মতন একজন জনপ্রিয় অভিনেতার সঙ্গে জিনি স্ক্রিন শেয়ার করেন, তাহলে কেন তিনি বেছে নিলেন তিনি আত্মহত্যার পথ? নেটিজেনদের কাছে আজও অজানা রহস্যের মতন তার মৃত্যুর ঘটনা।