জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহেই বঙ্গে প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা! অনুমান আবহাওয়াবিদদের

16
জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহেই বঙ্গে প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা! অনুমান আবহাওয়াবিদদের

রাজ্যবাসীর জন্য আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে আছে সুখবর। বর্তমানে যে তীব্র দাবদাহ এবং অস্বস্তিজনিত আবহাওয়ায় দিন কাটাতে হচ্ছে রাজ্যবাসীকে, শীঘ্রই সেই অবস্থা কেটে যাবে। আর মাত্র কিছুদিনের মধ্যেই রাজ্যে প্রবেশ করতে চলেছে বর্ষা। একথা আবহাওয়া দপ্তরের তরফ থেকে আগেই জানানো হয়েছিল। বর্তমানে আবহাওয়া দপ্তর জানাচ্ছে যে, রাজ্যে শুরু হতে চলেছে প্রাক বর্ষা মরসুম।

এই প্রাক বর্ষা মরসুমে রাজ্যজুড়ে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। অবশ্য আবহাওয়াজনিত অস্বস্তি এখনই কমবে না। কিন্তু উত্তরবঙ্গসহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। যার ফলে আবহাওয়া কিছুটা হলেও ঠান্ডা হবে। দক্ষিণ পশ্চিম মৌসুমি বায়ুটি এই মুহূর্তে ক্রমশ এগিয়ে চলেছে বঙ্গোপসাগরের দিকে। মধ্য বঙ্গোপসাগর পেরিয়ে ইতিমধ্যেই তা উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগরে পৌঁছে গিয়েছে।

আগামী ২৪ ঘন্টার মধ্যেই এই মৌসুমী বায়ু উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে প্রবেশ করতে চলেছে। জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহের শুরুতেই উত্তর বঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করতে চলেছে। তবে জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহের শেষের দিকেই নাকি দক্ষিণবঙ্গে বর্ষা প্রবেশ করবে। বর্তমানে মৌসুমী বায়ুর গতিপথের উপর নজর রেখে আবহাওয়াবিদদের অনুমান, বাংলায় এইবার সঠিক সময়েই বর্ষা প্রবেশ করবে।

আগামী শুক্রবার উত্তর বঙ্গোপসাগরে নিম্নচাপ সৃষ্টি হতে চলেছে। যার ফলে পশ্চিমবঙ্গের পাশাপাশি বিহার, ওড়িশা, ঝাড়খন্ড, সিকিম এমনকি ছত্রিশগড়েও নিম্নচাপের দরুন বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। অসম, মেঘালয়, মনিপুর, মিজোরাম, ত্রিপুরা এবং অরুণাচল প্রদেশ, উত্তর-পূর্ব ভারতের রাজ্যগুলিতে ইতিমধ্যে বৃষ্টি শুরু হয়ে গিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। আগামী কয়েকদিনে এই বৃষ্টিপাত আরো বাড়বে।