মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী ও তার বাসভবন উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিল দুষ্কৃতীরা

5
মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী ও তার বাসভবন উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিল দুষ্কৃতীরা

এবার খোদ মুখ্যমন্ত্রীকে হত্যা করার পাশাপাশি তার বাসভবন উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দিল দুষ্কৃতীরা। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ভব ঠাকরের বাসভবন “মাতোশ্রী”র ল্যান্ড ফোনে ফোন করে মুখ্যমন্ত্রীকে প্রাণে মারার এবং তার বাসভবন উড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেওয়া হয়। ফোনের ওপরে থাকা ব্যক্তি নিজেকে কুখ্যাত জঙ্গি সংগঠনের নেতা দাউদ ইব্রাহিম বলে পরিচয় দিয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রীর দপ্তর সূত্রে খবর, শনিবার রাত ১১ থেকে ১২ টার মধ্যে মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনের ল্যান্ডফোনে বেশ কয়েকবার ফোন আসে। যেখানে জানানো হয়, যে ব্যক্তি ফোন করছে সে নাকি দাউদ ইব্রাহিম। দুবাই থেকে ফোন করছে দাউদ। ফোনে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়, উদ্ভব ঠাকরে যেভাবে রাজ্য পরিচালনা করছেন, তা পছন্দ নয় দাউদের। এর পরেই, মুখ্যমন্ত্রীকে হুমকি দিয়ে বলা হয়, যত শীঘ্র সম্ভব নিজেকে শুধরান মুখ্যমন্ত্রী। নতুবা, মুখ্যমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রী বাসভবন উড়িয়ে দিতে পিছপা হবে না দাউদ সংগঠন।

স্বভাবতই এই‌ উড়ো ফোন কল পেয়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে রাজনৈতিক মহলে। প্রশাসনের তরফ থেকে মুখ্যমন্ত্রী এবং তার বাসস্থানের সুরক্ষা সুনিশ্চিত করতে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। পাশাপাশি, এই ফোনকলের উৎস আদেও দুবাই কিনা, এবং এই উড়ো ফোনকলের সাথে আদেও আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের কোন যোগাযোগ আছে কিনা, সে সম্পর্কে তদন্ত করছে পুলিশ।

উল্লেখ্য, আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের প্রকৃত বাসস্থান কোথায়, সে সম্পর্কে নিশ্চিতভাবে কোনো কিছু জানা যায়নি। ১৯৯৩ সালে সংঘটিত মুম্বাই হামলার মূল ষড়যন্ত্রকারী ছিল দাউদ। ঘটনার পরেই অবশ্য পাকিস্তানে আশ্রয় নেয় ভারতের মোস্ট ওয়ান্টেড ক্রিমিনাল দাউদ ইব্রাহিম। ভারতের তরফ থেকে দাবি করা হয়, পাকিস্তানের করাচির ক্লিফটন এলাকায় থাকে দাউদ। তবে বরাবরই ভারতের এই দাবি খারিজ করে এসেছে পাকিস্তান।