নকল কালো জিরায় ছেয়ে গেছে বাজার? কেনার আগে দেখে নিন এই বিষয়গুলি

3
নকল কালো জিরায় ছেয়ে গেছে বাজার? কেনার আগে দেখে নিন এই বিষয়গুলি

আমরা সবাই কালোজিরার প্রতি বেশী আকর্ষণীয়, তাই আমরা দোকানে গিয়ে সবার প্রথমে কালোজিরে খুঁজে থাকি। যদি জিরে কালো না হয়, তাহলে ক্রেতারা সেই জিরে কিনবেনা এই ধারণা হয়ে গেছে ক্রেতাদের। তাই বিক্রেতাদেরও অসৎ উপায় বার করতে হয়েছে। এরজন্য জিরে কে কালো কুচকুচে করার জন্য তারা অসৎ উপায় বের করেছে। যারফলে মানব দেহের চরম ক্ষতি হতে পারে যা হয়তো অনেকেরই অজানা।

কালোজিরা সাধারণত আমাদের বড়বাজারের মার্কেটে আসে নদীয়া তেহট্ট চাপরা থেকে। সেখানকার কালোজিরা প্রস্তুতকারীরা অসৎ উপায়ে পুকুর থেকে কালো পাক তুলে নিয়ে আসে। তারপর সেগুলিকে রোদে শুকিয়ে গুড়ো গুড়ো করে কালোজিরার সাথে মিশিয়ে নেয় এবং পোড়া মবিল দিয়ে কালো কুচকুচে কালো জিরা কে। তারপরে সেই কালো জিরা আমাদের কলকাতার বড় মার্কেট বড়বাজারে আসে এবং নানা দোকানে বিক্রি হয়।

এই সম্বন্ধে বিক্রেতাদের বক্তব্য হলো, সাধারণ মানুষেরা কালো কুচকুচে কালো জিরা না হলে কিনতে চায়না, তাই তারা এই জিরে বিক্রি করতে বাধ্য হচ্ছে। ব্যবসায়ীদের এই জিরে বিক্রি করে পাঁচ থেকে ছয় টাকা লাভ বেশি হয়। নদীয়াতে এই জিরে বিক্রি হয় ৪০ টাকায় এবং এখানকার দোকানদাররা কেনে ৭৫ টাকা এবং ক্রেতারা কেনে ১১০ টাকায় প্রতি কেজি।

সম্বন্ধে যাদবপুরের ফুড এন্ড টেকনোলজি বিভাগের গবেষক ও অধ্যাপক ডক্টর প্রশান্ত বিশ্বাস বলেছেন, পোড়া মবিল দিয়ে কালো জিরে খাওয়া মানুষের দেহের পক্ষে খুবই ক্ষতিকারক। মানুষের পাকযন্তের ক্ষতি হতে পারে এবং ক্যান্সারের মতো মারন রোগ হতে পারে। পুলিশকে এই সম্বন্ধে প্রশ্ন করা হলে পুলিশ বলেন, আমরা এরকম কোন খবর পাইনি। যদি কেউ এই সম্বন্ধে অভিযোগ করে তাহলে তদন্ত করা হবে এই বিষয়ে।