জনজাতিকে রক্ষা করলেও ধ্বংসের পথে সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ

15
জনজাতিকে রক্ষা করলেও ধ্বংসের পথে সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ

সুন্দরবন উপকূলবর্তী অঞ্চলে ম্যানগ্রোভের যে দেওয়াল রয়েছে, সেই গহীন অরণ্যের দেওয়াল অতিক্রম করে ঝড়ঝাপটা সেইভাবে সুন্দরবনকে ধ্বংস করতে পারে না। তবে সেই ঝড়ের দাপটে বারংবার ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ। সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ অরণ্যটিই কার্যত সমুদ্রের জলোচ্ছাসের হাত থেকে জনজাতিকে রক্ষা করে চলেছে।

ঘূর্ণিঝড় আয়লা হোক, সিডার, ফণী বা বুলবুল; সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ অরণ্য ইতিপূর্বে বহুবার ভয়ংকর ঘূর্ণিঝড়ের হাত থেকে পশ্চিমবঙ্গকে রক্ষা করেছে। ঘূর্ণিঝড়ের তীব্র প্রকোপের হাত থেকে সুন্দরবনের এই ম্যানগ্রোভ অরণ্যের দেওয়াল আমাদের রক্ষা করে। ম্যানগ্রোভ অরণ্যের দেওয়ালে ধাক্কা খেয়ে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব অনেকখানি কমে যায়। যার ফলে ঘূর্ণিঝড় আর সেভাবে তাণ্ডব চালাতে পারেনা।

তবে গতবছর আম্ফান পর্বে সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ অরণ্য অনেকাংশে ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। সুন্দরবনের গহীন অরণ্যের একাংশ বর্তমানে ক্ষতিগ্রস্ত। এদিকে আবার ঘূর্ণিঝড় যশ আছড়ে পড়তে চলেছে সুন্দরবন উপকূলবর্তী অঞ্চলে। অতএব আবারও সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ অরণ্যের উপর নির্ভর করে রয়েছেন উপকূলবর্তী অঞ্চলের মানুষেরা।

তবে গত বছরের পর যেই ভাবে সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ অরণ্য ধ্বংস হয়েছে তাতে আতঙ্ক কিন্তু সাধারণ মানুষের পিছু ছাড়ছে না। ম্যানগ্রোভ অরণ্যের হাজার হাজার গাছ নষ্ট হয়ে গিয়েছে। এতদিন কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ অঞ্চলকে রক্ষা করেছে এই ম্যানগ্রোভ। তবে এইবার ম্যানগ্রোভ অরণ্য নষ্ট হয়ে যাওয়াতে ঘূর্ণি ঝড়ের দাপটের হাত থেকে পশ্চিমবঙ্গ ঠিক কতটা রক্ষা পাবে পাবে তা নিয়ে চিন্তিত আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা।