খরচ বাঁচাতে এবার বিশেষ স্কিম আনতে চলেছে মধ্যপ্রদেশ সরকার

16
খরচ বাঁচাতে এবার বিশেষ স্কিম আনতে চলেছে মধ্যপ্রদেশ সরকার

খরচ বাঁচাতে এবার বিশেষ স্কিমের পথে হাঁটতে চলেছে মধ্যপ্রদেশ সরকার। এক আধিকারিক সূত্রে খবর, জরুরী পরিষেবা নয় এমন পরিস্থিতিতেও নিয়োজিত সরকারি কর্মী তিন থেকে পাঁচ বছর পর্যন্ত ছুটিতে যেতে পারবেন এবং সেই সময় তাঁদের অর্ধেক বেতন দেওয়া হবে। তবে ইতিমধ্যেই এই ধরনের স্কিম লাগু করা হয়েছে আমেরিকা ও ইংল্যান্ডে। এই স্কিমের মাধ্যমে কোনো কর্মচারী তিন বছরের জন্য ছুটিতে যেতে পারেন ঠিকই তবে সেক্ষেত্রে তিনি মাসিক বেতনের ৭০ শতাংশ পর্যন্ত পাবেন। এদিকে সেই ছুটির সময়কালের মধ্যে ওই কর্মী যেকোনও জায়গায় কাজ এমনকী ব্যবসাও করতে পারবেন। এরপর তিন বছর পর তিনি কাজে ফিরতেও পারেন অথবা, স্বেচ্ছা অবসরের জন্য আবেদন করতে পারেন।

মধ্যপ্রদেশের অর্থদফতরের এক আধিকারিকের কথায় রাজ্য প্রায় ২.৫৩ লক্ষ কোটি টাকা দেনায় ডুবে গিয়েছে। কোভিড পরিস্থিতিতে রাজস্ব আদায়ও ৩০ শতাংশ কমে গিয়েছে। আপাতত মুখ্যমন্ত্রীর অনুমোদনের জন্য এই প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। অর্থমন্ত্রী জগদীশ দেওদা জানিয়েছেন, খরচ বাঁচিয়ে সাধারণ মানুষের উন্নতির জন্য এই বিশেষ পরিকল্পনার কথা ভাবা হচ্ছে।

অর্থমন্ত্রী বক্তব্য অনুযায়ী, আমরা সকলেই জানি লকডাউন আমাদের উপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। সেকারণে খরচ কমিয়ে ও রাজস্বের মাধ্যমে আয় বাড়ানোর চেষ্টা করছি। তবে প্রশাসন তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে সবেতন ছুটির সময়ে সংশ্লিষ্ট কর্মীর কোনও ইনক্রিমেন্ট হবে না বা অন্যান্য ভাতাও মিলবে না। তবে যাঁদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত হচ্ছে, যারা সাসপেনশনের মধ্যে আছেন তাদের ক্ষেত্রে এই স্কিম লাগু হবে না। এর মাধ্যমে সরকার স্যালারি বাজেট থেকে প্রায় ১০ শতাংশ বাঁচাতে পারবে। প্রসঙ্গত ২০০২ সালেও এই ধরনের Furlough Scheme-এর অর্ডার বেরিয়েছিল।