প্রকাশিত হল বিশ্বের সেরা ১০ সুদর্শন অভিনেতাদের তালিকা

80
প্রকাশিত হল বিশ্বের সেরা ১০ সুদর্শন অভিনেতাদের তালিকা

নোয়া মিলস্ঃ সেরা সুদর্শন অভিনেতাদের তালিকায় সেরার সেরা খেতাব অর্জন করলেন কানাডিয়ান অভিনেতা নোয়া মিলস্। ক্যারিয়ার জীবন মাত্র আট বছরের। ‘সেক্স অ্যান্ড দ্য সিটি টু’, ‘ক্যান্ডিল্যান্ড’, ‘অ্য ফিশার অব ম্যান’ এর মতো জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় করেছেন তিনি। পাশাপাশি ‘ওয়ার্ল্ড টপ মোস্ট ডট কম’ এর বিচারে সপ্তম স্থানাধিকারী হয়েছেন তিনি।

রবার্ট প্যাটিনসন: প্যাটিনসন রয়েছেন সেরা সুদর্শন অভিনেতাদের তালিকার দুই নম্বরে। মূলত হলিউডে অভিনয় করেন। ২০০৫ সালে ‘হ্যারি পটার অ্যান্ড দ্য গবলেট অব ফায়ার’ চলচ্চিত্রের হাত ধরে তার অভিনয় জীবন শুরু হয়। এরপরে তিনি টোয়াইলাইট চলচ্চিত্র ধারাবাহিকে অভিনয়ের পর সবার নজরে আসেন। তারপর একে একে ‘কসমোপলিস’, ‘রিং অব দ্য নিবেলাঙ্গস’, ‘কুইন অব দ্য ডেজার্ট’ এর মতো বিখ্যাত ছবি উপহার দিয়েছেন। রবার্টের এরূপ নতুন নতুন চমকের জন্য দর্শকগণ অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করে থাকেন।

গডফ্রে গাওঃ তালিকায় তৃতীয় স্থানে জায়গা করে নিয়েছেন এই অভিনেতা । বর্তমানে বিভিন্ন টেলিভিশন সিরিজে কাজ করছেন তিনি। ‘টয় স্টোরি থ্রি’, ‘দ্য মোরাল ইনস্ট্রুমেন্টস: সিটি অব বোনস’ এর মতো ছবিগুলোতে চুটিয়ে অভিনয় করে দর্শকদের কাছে নিজের খ্যাতি বাড়িয়ে তুলেছেন তাইওয়ানের অভিনেতা গডফ্রে গাও।

ক্রিস ইভান্সঃ জনপ্রিয় হলিউড অভিনেতা ক্রিস ইভান্স আপাতত রয়েছেন তালিকার চার নম্বরে।তাঁর অভিনয় জীবনের হাতেখড়ি একটি টেলিভিশন সিরিজ দিয়ে, নাম ‘অপোজিট সেক্স’। এমটিভি মুভি পুরস্কারে ক্রিসকে সম্মানিত করা হয় ‘দ্য অ্যাভেঞ্জার্স’ ছবিতে বেস্ট ফাইট অ্যাক্টর হিসেবে।

ঋত্বিক রোশন: বলিউডের অভিনেতা ঋত্বিক এর জন্য কোনো বিশেষণই হয়তো যথেষ্ট নয়। বয়স সত্যিই শুধুমাত্র একটি সংখ্যা। কারণ ৪৪ বছর বয়সেও বিশ্বের তাবড় অভিনেতাদের পেছনে ফেলে সেরা সুদর্শন অভিনেতার পুরস্কার জিতে নিয়েছেন এই অভিনেতা।

সালমান খানঃ জনপ্রিয় মুখ সালমান জায়গা করে নিয়েছেন তালিকার পাঁচ নম্বরে। ত্রিশ বছরের অধিক সময়ের কর্মজীবনে তিনি অসংখ্য পুরস্কার অর্জন করেছেন। বলিউডের ভাইজানকে বিশ্ব ও ভারতীয় চলচ্চিত্রের অন্যতম ব্যবসাসফল অভিনয়শিল্পী বলে আখ্যায়িত করা হয়। বলিউড থেকে ঋত্বিকের পর তিনিই একমাত্র সুদর্শন অভিনেতা নির্বাচিত হয়েছেন।

ডেভিড বোরানাজঃ বিখ্যাত অভিনেতা ডেভিড বোরানাজ রয়েছেন ছয় নম্বরে। শুধু অভিনয় তাঁর একমাত্র পরিচয় নয়, পাশাপাশি তিনি পরিচালক এবং প্রযোজকও। যে সমস্ত বিখ্যাত ছবিতে তিনি অভিনয় করেছেন তাহল- ‘সাফারিং ম্যানস চ্যারিটি’, ‘ভ্যালেন্টাইন’, ‘মিস্টার ফিক্স ইট’, ‘দিজ গার্লস’ ইত্যাদি।

হেনরি কাভিল: সেরা সুদর্শন অভিনেতার তালিকায় এবার জায়গা করে নিলেন হেনরি কাভিল । পাশাপাশি ‘ওয়ার্ল্ড টপ মোস্ট ডট কম’ এর তালিকায় রয়েছেন আট নম্বরে। ‘আই ক্যাপচার দ্য ক্যাসেল’, ‘ইমমরটালস্’ ছবিতে তাঁর অভিনয় সত্যিই কখনো ভোলার নয়। ছবির সাথে সাথে অসংখ্য টেলিভিশন সিরিজেও কাজ করেছেন হেনরি কাভিল।

টম হিডলেসটনঃ সেরা সুদর্শন অভিনেতা হিসেবে নবম স্থানে রয়েছেন টম হিডলেসটন। ২০১১ সালে ‘দ্য ডিপ ব্লু সি’,২০১২ সালে ‘দ্য অ্যাভেঞ্জার্স’ ইত্যাদি ছবিতে অভিনয় করে যথেষ্ট জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন এই অভিনেতা। তিনি ২০১৩ সালে এমটিভি মুভি অ্যাওয়ার্ড, ২০১৪ সালে ইভিনিং স্ট্যান্ডার্ড থিয়েটারের পক্ষ থেকে সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছেন।

সাকিব খানঃ তালিকায় দশম স্থানে রয়েছেন বাংলাদেশের বিখ্যাত অভিনেতা সাকিব খান। দুই দশক ধরে ঢাকায় সিনেমায় তাঁর প্রভাব সত্যিই চোখে পড়ার মতো। কর্মকাণ্ড বিতর্ক, ব্যক্তিগত কারণে প্রশ্নবিদ্ধ নানা ঘাত প্রতিঘাতেও থমকে যান নি তিনি। একের পর এক চলচ্চিত্রে অভিনয় করে গেছেন তিনি। তবু চলচ্চিত্র প্রেমীদের কাছে ভাটা পড়েনি ।