সম্প্রতি বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি পেল তেলেঙ্গানার কাকতীয় রামপ্পা মন্দির

36
সম্প্রতি বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে স্বীকৃতি পেল তেলেঙ্গানার কাকতীয় রামপ্পা মন্দির

ভারতীয় স্থাপত্য এবং সভ্যতা বহু পুরানো এবং ঐতিহ্যবাহী। ভারতের এমনই একটি স্থাপত্য সম্প্রতি ইউনেস্কোর তালিকায় উঠে এলো। বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হলো তেলেঙ্গানার কাকতীয় রামপ্পা মন্দিরকে। এই স্বীকৃতি লাভের পর প্রধানমন্ত্রীর নরেন্দ্র মোদি ইউনেস্কোকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। পাশাপাশি তেলেঙ্গানার বাসিন্দাদের তিনি শুভেচ্ছা বার্তা পাঠিয়েছেন। তিনি তার বক্তব্যে বলেন তেলেঙ্গানায় অবস্থিত ওই রামপ্পা মন্দির মহান কাকতীয় বংশের উৎকৃষ্ট শিল্পকলার প্রদর্শন করে।

প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে দেশের সকল মানুষকে এই মন্দিরে যাওয়ার এবং তার স্থাপত্যকলার সাথে থাকার আবেদন জানিয়েছেন। ওয়ারঙ্গালে থাকা এই শিব মন্দির একমাত্র মন্দির যার নাম বিশিষ্ট ঐতিহাসিক শিল্পকার রামপ্পার নামে রাখা হয়েছে। ইতিহাস অনুসারে ত্রয়োদশ শতাব্দীতে কাকতীয় বংশের রাজা এই মন্দিরের নির্মাণ করেছিলেন। উল্লেখ্য ত্রয়োদশ শতাব্দীর বেশিরভাগ মন্দিরই এখন ভগ্নদশায় পৌঁছে গিয়েছে।

তবে রামাপ্পার এই মন্দিরটি আজও যেন নতুনের মতো হয়ে আছে। হাজার হাজার বছর ধরে প্রাকৃতিক দুর্যোগের সম্মুখীন হয়েও আজও এই মন্দিরটি অটুট অবস্থায় বিরাজ করছে। হাজারটি স্তম্ভের উপর বানানো হয়েছে এই মন্দির। কেন্দ্রীয় সাংস্কৃতিক মন্ত্রী জি কিষাণ রেড্ডি একটি টুইট বার্তায় জানিয়েছেন, UNESCO তেলেঙ্গানার ওয়ারঙ্গালের রামপ্পা মন্দিরকে বিশ্ব ঐতিহ্যের খ্যাতি দিয়েছে এতে তিনি ভীষণ খুশি হয়েছেন। এজন্য তিনি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তরফ থেকে তেলেঙ্গানার বাসিন্দাদের শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন।

তেলেঙ্গানার এই অদ্ভুত স্থাপত্য কলাকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে ঘোষণার করার জন্য ২০১৯ সালে ইউনেস্কোর কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছিল। সেই প্রস্তাব অনুমোদন করেছে ইউনেস্কো। একইসঙ্গে ভারতীয় স্থাপত্যকলার গৌরবের মুকুটে আরেকটি পালক সংযুক্ত হলো।