আফগানিস্তানে তালিবান শাসন নিয়ে নিজেদের মতামত জানালেন চুচুরার এই কাবুলিওয়ালারা

12
আফগানিস্তানে তালিবান শাসন নিয়ে নিজেদের মতামত জানালেন চুচুরার এই কাবুলিওয়ালারা

ব্যবসার জন্য দীর্ঘদিন আগেই নিজের দেশ পরিত্যাগ করে ভারতে এসেছিলেন জামাল খান, আইনুদ্দিন খানরা। চুঁচুড়া চকবাজারে কাবলি কুঠি নামে পরিচিত একটি বাড়িতে প্রায় ১২-১৪ জন কাবুলিওয়ালা বসবাস করেন। তারা দীর্ঘ বেশ কয়েক দশক ধরেই ভারতে বসবাস করছেন। আফগানিস্তানে তালিবানি শাসন সম্পর্কে তারা নিজেদের মতামত তুলে ধরলেন।

জামাল খান, আইনুদ্দিন খানদের মতে আফগানিস্তানে তালিবানি সরকারকে একটি সুযোগ দেওয়া উচিত। তারা মনে করছেন, এই তালিবানরা আগের তুলনায় অনেক উন্নত হয়েছে। সময়ের বিবর্তনে সঙ্গে সঙ্গে তারা নিজেদের পরিবর্তন করেছে। তাই তারা যদি দেশের উন্নতির জন্য কাজ করতে চায় তাহলে তাদের সেই সুযোগ দেওয়া উচিত। তবে তারা মনে করেন, সময় বলে দেবে আফগানিস্তানের জনগণ কী চান।

আইনুদ্দিনের মতে, তালিবানরা যদি ১০ দিনে একটা সরকার ফেলে দিতে পারে, সেরকম জনগণের জল-রুটি ও কাজের যদি ব্যবস্থা না করতে পারে, তবে জনগণ পাঁচ দিনে এই সরকারকে ফেলে দেবে। তিনি আরো মনে করছেন, এতদিন যারা আফগানিস্তানের জন্য কাজ করে এসেছেন, তাদের যদি ফিরিয়ে নিয়ে আসা না হয় তবে তালিবানরা আফগানিস্তানে সরকার চালাতে পারবে না।

তালিবানদের মধ্যে শিক্ষিত ব্যক্তির অভাব আছে বলে মনে করেন আইনুদ্দিন। প্লেন চালাতে গেলে যেমন শিক্ষিত পাইলটের দরকার হয়, কম্পিউটার চালাতে গেলে যেমন শিক্ষিত ব্যক্তির দরকার হয়, তেমনি সরকার চালাতে গেলেও শিক্ষিত ব্যক্তিদের ফিরিয়ে আনতে হবে বলে তিনি মনে করেন। অপরপক্ষে জামাল খান এই ভেবে অবাক হয়ে যাচ্ছেন যে মুষ্টিমেয় তালিবানের কাছে সাড়ে তিন লক্ষ সেনা কিভাবে আত্মসমর্পণ করে বসলেন! তার মতে এর জবাব দেবে সময়।