লাদাখের চরম শীতেও চীনকে উপযুক্ত জবাব দিতে সক্ষম ভারতীয় সেনাবাহিনী

4
লাদাখের চরম শীতেও চীনকে উপযুক্ত জবাব দিতে সক্ষম ভারতীয় সেনাবাহিনী

লাদাখের চরম শীতের মতো প্রতিকূল পরিবেশেও চীনা সেনাবাহিনীকে উপযুক্ত জবাব দিতে সক্ষম ভারতীয় সেনাবাহিনী। ভারতীয় সেনাবাহিনীর নর্দান কমান্ডের তরফ থেকে জানিয়ে দেওয়া হল, চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি যদি এরপর ভারতের সাথে শত্রুতা বৃদ্ধি করার চেষ্টা করে, তাহলে তার ফল মোটেই ভালো হবে না। প্রতিকূল পরিবেশে চীনকে উপযুক্ত জবাব দেওয়ার মতো সামর্থ্য এবং সাহস, দুটোই আছে ভারতের।

সম্প্রতি চীনের সরকারি সংবাদ মাধ্যমের মুখপত্র “গ্লোবাল টাইমস” এ ভারত-চীন সীমান্ত সংঘাত সম্পর্কে একটি প্রতিবেদন পেশ করা হয়েছিল। যেখানে চিনা কূটনৈতিক এবং প্রতিরক্ষা বিশেষজ্ঞরা সরাসরি লাদাখ সীমান্তে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সামর্থ্য সম্পর্কে প্রশ্ন তুলেছিলেন। প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছিল, সামনেই শীতকাল আসছে। শীতকালে লাদাখের প্রতিকূল পরিবেশে চিনা সৈন্য বাহিনীর বিরুদ্ধে টিকে থাকা সম্ভব হবে না ভারতের পক্ষে।

সেই দিক থেকে চীনা সেনাবাহিনী অনেকটাই এগিয়ে বলে দাবি করা হয়েছিল প্রতিবেদনে। লাদাখে প্রতিকূল পরিবেশে চীনের পিপলস লিবারেশন আর্মি নাকি সহজেই ভারতীয় সেনাবাহিনীকে পরাস্ত করতে পারবে। ভারতীয় নর্দান কমান্ডের তরফ থেকে অবশ্য এই দাবি সরাসরি খারিজ করে দেওয়া হয়েছে। নর্দান কমান্ডের আধিকারিকেরা জানিয়ে দিয়েছেন, যেকোনো পরিস্থিতিতেই চীনকে উপযুক্ত জবাব দিতে সক্ষম ভারত।

নর্দান কম্যান্ডের মুখপাত্র জানিয়েছেন, চীনা সেনাবাহিনী সমতল ভূমিতে যুদ্ধ করে অভ্যস্ত। অপরদিকে, ভারতীয় সেনাবাহিনী প্রথম থেকেই লাদাখের প্রতিকূল পরিবেশে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিয়েছে। তিনি দাবি করেছেন, পাহাড়ি পরিবেশে কিভাবে যুদ্ধ করতে হয়, সেই কৌশল জানা নেই চীনের লাল ফৌজের। ভারতের মাউন্টেন ফোর্স, লাদাখের স্পেশাল ফ্রন্টিয়ার ফোর্স লাদাখের প্রতিকূল পরিবেশের অনুকূলেই নিজেদের প্রস্তুত করেছেন। তাই লাদাখের চরম প্রতিকূল পরিবেশেও চীনের সেনাবাহিনীর মোকাবিলা করতে প্রস্তুত ভারতীয় সেনাবাহিনী।