সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে হাল্কা যুদ্ধবিমান তেজসকে নতুন ভাবে আপডেট করলো ভারতীয় বায়ুসেনা বিভাগ

12
সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে হাল্কা যুদ্ধবিমান তেজসকে নতুন ভাবে আপডেট করলো ভারতীয় বায়ুসেনা বিভাগ

ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রযুক্তি সংক্রান্ত গবেষণা এক নতুন মোড় নিল। ভারতের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি হাল্কা যুদ্ধবিমান তেজসকে নতুন ভাবে আপডেট করলো ভারতীয় বায়ুসেনা বিভাগ। ভারতীয় যুদ্ধবিমানের এই আপডেটেড ভার্সন থেকে শত্রুপক্ষের উদ্দেশ্যে পঞ্চম প্রজন্মের পাইথন-৫ মিসাইল ছোঁড়া যাবে অনায়াসেই। গত বুধবার গোয়ায় এই এয়ার টু এয়ার মিসাইলের সফল পরীক্ষা করেছে ডিআরডিও।

ভারতের প্রতিরক্ষা গবেষণা ও উন্নয়ন সংস্থা ডিআরডিও তরফে জানানো হয়েছে, গত বুধবার এই এয়ার টু এয়ার মিসাইলের সফল উৎক্ষেপণের মাধ্যমে ভারতের যুদ্ধবিমান তেজসের ঘাতক ক্ষমতা আরও কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেল। প্রসঙ্গত, পাইথন-৫ স্বল্প পাল্লার একটি ক্ষেপণাস্ত্র যা দৃষ্টির বাইরে থাকা লক্ষ্যবস্তুতেও ১০০ শতাংশ পর্যন্ত নিখুঁত আঘাত হানতে পারে।

৩.১ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ১০৫ কেজি ওজন সম্পন্ন পাইথন-৫ ক্ষেপণাস্ত্রটি ১১ কেজি ওজনের শক্তিশালি বিস্ফোরক বহন করার ক্ষমতা রাখে। উল্লেখ্য ইতিপূর্বে ফ্রান্স থেকে আমদানি করা রাফায়েল যুদ্ধবিমানেও এমন এয়ার টু এয়ার আঘাত হানার ক্ষমতা রয়েছে। তবে ভারতীয় প্রযুক্তিতে তৈরি তেজস যুদ্ধবিমান মারফত প্রথম এই উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহার করল ভারতীয় বায়ুসেনা বিভাগ।

একেবারে নির্ভুল এবং নিখুঁতভাবে লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে পাইথন। বিপক্ষের বিমানের বিশেষ কোনও একটি অংশেও নির্ভুল লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম এই মিসাইল। তেজসের সঙ্গে পাইথনের যোগসাজশে ভারতীয় বায়ুসেনা বিভাগ শত্রু পক্ষের বিরুদ্ধে আগের তুলনায় এক ধাপ এগিয়ে আরও মারাত্মক রূপ ধারণ করলো।