তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করা নেতাদের অবস্থান নিয়ে চিন্তায় গেরুয়া শিবির

6
তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করা নেতাদের অবস্থান নিয়ে চিন্তায় গেরুয়া শিবির

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের প্রেক্ষাপট বিগত বেশ কয়েক মাস ধরেই তৃণমূল শিবিরের একাধিক দলীয়কর্মী বিজেপি শিবিরে যোগদান করেছেন। এদের মধ্যে হাতেগোনা কয়েকজন নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন। তৃণমূল শিবির থেকে যে ৩৩ জন বিধায়ক গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন, তাদের মধ্যে মাত্র পাঁচজন জয়লাভ করেছেন। বাকিদের মধ্যে অনেকেই নাকি আবার দল বদলে ইচ্ছুক!

যারা দল বদল করে এসেছিলেন তাদের মধ্য থেকে পাঁচজন ইতিমধ্যেই আবার তৃণমূল শিবিরে ফেরার মনস্থ করেছেন। রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন ভবিষ্যতে নাকি সংখ্যাটা আরো বাড়তে পারে। বেশ কয়েকজন সদস্যের সঙ্গে গেরুয়া শিবিরের আপাতত কোনো যোগাযোগ নেই। ফলে দলের সদস্যদের মধ্যে কতজন দলে শেষ পর্যন্ত টিকে থাকবেন সেই নিয়ে বিজেপি শিবির সন্দীহান।

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি মাত্র তিনটি আসনে জয়লাভ করতে পেরেছিল। খড়্গপুর সদর, বৈষ্ণবনগর এবং মাদারিহাট বিধানসভা কেন্দ্র তিনটিই কেবল বিজেপিকে আশার আলো দেখিয়েছিল। উপনির্বাচনে অবশ্য ভাটপাড়া, দার্জিলিং, কৃষ্ণগঞ্জ এবং হবিবপুরে জয়লাভ করতে পেরেছিল বিজেপি। অর্থাৎ ধীরে ধীরে বাংলায় বিজেপির শক্তি বৃদ্ধি পাচ্ছে। সেই সময় থেকেই বিভিন্ন দল থেকে প্রায় ৩৩ জন বিধায়ক বিজেপি শিবিরে পা রাখেন।

২০১৭ সালে মুকুল রায় তৃণমূল শিবির ছেড়ে বিজেপি দলে যোগদান করেন। তারপর থেকেই কার্যত একের পর এক তৃণমূল নেতা-কর্মী বিজেপি শিবিরে যোগদান করতে শুরু করেন। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে সংখ্যাটা বাড়তেই থাকে। শুভেন্দু অধিকারী, বিশ্বজিৎ দাস, মিহির গোস্বামী, তাপসী মণ্ডল এবং সুদীপ মুখোপাধ্যায় ছাড়া অবশ্য নির্বাচনে জয়লাভ করতে পারেননি কেউ। তাই আগামী দিনে দলে তাদের অবস্থান কেমন হবে এই নিয়ে চিন্তিত বিজেপি শিবির।