বেআইনি গাছ কাটায় জঙ্গল মাফিয়াকে ১ কোটি ২১ লক্ষ টাকা জরিমানা করল বন দপ্তর

18
বেআইনি গাছ কাটায় জঙ্গল মাফিয়াকে ১ কোটি ২১ লক্ষ টাকা জরিমানা করল বন দপ্তর

সারাদেশ এখন করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করতে গিয়ে অক্সিজেনের অভাবে ধুঁকছে। সিলিন্ডার বন্দি তরল অক্সিজেনের চাহিদা বেড়ে চলেছে। সেই চাহিদা মেটাতে বেশ কিছু ক্ষেত্রে অসমর্থ হয়ে পড়ছে প্রশাসন। অথচ যে গাছ আমাদের নিত্যদিন বিনে পয়সায় অক্সিজেন যুগিয়ে চলেছে, সেই গাছের কদর আমরা ক’জনই বা করি? গাছ থাকুক বা না থাকুক, মানব সভ্যতা টিকিয়ে রাখার লক্ষ্যে অবিচল মানব প্রজাতি। যার ফল হচ্ছে ভয়াবহ।

একদিকে যেমন বাতাস করোনার ভাইরাসে ছেয়ে গিয়েছে, অপরদিকে তেমনই বাতাসে মানব সভ্যতা টিকিয়ে রাখার জন্য প্রধান প্রয়োজনীয় উপাদান অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দিচ্ছে। কারণ? নির্বিচারে গাছ কাটা। লোভ চরিতার্থ করতে গিয়ে অবিরাম যেন নিজের কবর নিজেই খোদাই করে চলেছে মানুষ। সেই অসচেতন মানুষের মধ্যে সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে তাই এবার বিশেষ উদ্যোগ গ্রহণ করল মধ্যপ্রদেশের প্রশাসন।

জঙ্গল মাফিয়ারা সম্প্রতি মধ্যপ্রদেশের গভীর জঙ্গল থেকে ২ টি সেগুন গাছ কেটে ফেলেছিল। যার পরিপ্রেক্ষিতে মধ্যপ্রদেশের বন দপ্তরের এক অফিসার তাদের এক কোটি ২১ লক্ষ টাকা জরিমানা করে বসলেন। মধ্যপ্রদেশের রাইসেন জেলার ভামরি ফরেস্ট রেঞ্জের ঘটনা এটি। চলতি বছরের ৫ই এপ্রিল জঙ্গল মাফিয়ারা গাছ দুটিকে কেটে ফেলে।

বন দপ্তরের কর্মীরা এরপর তদন্ত চালিয়ে জানতে পারেন ছোটেলাল ভিলালা নামক এক জঙ্গল মাফিয়া এই বেআইনি কাজের সঙ্গে জড়িত ছিল। ২৬শে এপ্রিল তাকে গ্রেপ্তার করেছে বন দফতরের কর্মীরা। এরপরেই শাস্তিস্বরূপ জরিমানা হিসেবে ১ কোটি ২১ লক্ষ টাকা ধার্য করা হয় তার বিরুদ্ধে। বন দপ্তরের এমন পদক্ষেপ জঙ্গল মাফিয়াদের জন্য নজির হয়ে থাকবে।