পঞ্চম বার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে এসে সন্তানদের অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেফতার বাবা

14
পঞ্চম বার বিয়ের পিঁড়িতে বসতে এসে সন্তানদের অভিযোগের ভিত্তিতেই গ্রেফতার বাবা

৫৫ বছর বয়সে এসে ঘরে চার স্ত্রী এবং সাত সন্তান রেখে পঞ্চম বারের জন্য বিয়ের পিঁড়িতে বসেছিলেন শফি আহমেদ। কিন্তু শেষমেষ বিয়েটা আর তার হয়ে উঠল না। পঞ্চম বিয়েতে বাগড়া দিতে বিয়ের আসরে অতিথি সেজে হাজির হয় তার সাত সন্তান। বাবার বিয়ে হতে দিলেন না তারা। সন্তানদের অভিযোগের ভিত্তিতেই বাবাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বুধবার রাতে বিয়ের মন্ডপে সন্তানদের সঙ্গে বচসা শুরু হয় বাবার। শফীর সন্তানরা বাবার বিয়েতে আমন্ত্রিত অতিথি সেজে হাজির হন। এরপরই বিয়ের মণ্ডপে রীতিমত শোরগোল পড়ে যায়। কনের পরিবারের সঙ্গে তাদের অশান্তি শুরু হয় এমনকি মারামারি পর্যন্ত গড়ায়। আগেভাগেই পুলিশকে সবকিছু জানিয়ে রেখেছিলেন সন্তানরা।

বিপক্ষের মধ্যে অশান্তি বেধে যেতেই পুলিশ ঘটনার স্থলে এসে পরিস্থিতি সামাল দেয়। ওই ব্যক্তির সন্তানদের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে অভিযোগ তিনি কিছুদিন ধরেই পরিবারকে সংসার খরচ দেওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলেন। এসো আটা ছেলেমেয়েরা খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন বাবা পঞ্চমবার বিয়ের পরিকল্পনা করছেন।

এরপর তারা শফীকে হাতেনাতে ধরার পরিকল্পনা করে ফেলেন। সেইমতো বাবার বিয়ে ভেস্তে দিলেন তারা। পঞ্চমবার বিয়ে করতে এসে আপাতত শ্রী ঘরে যেতে হল প্রৌঢ়কে।