ভারতের বাজারে লঞ্চ করা হল ইলেকট্রিক গাড়ি Tesla Model 3

23
ভারতের বাজারে লঞ্চ করা হল ইলেকট্রিক গাড়ি Tesla Model 3

বিগত বেশ কয়েক মাস ধরেই পেট্রোলের দাম বাড়তে বাড়তে রীতিমতো সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে ফেলেছে। পরিস্থিতি এমনই যে জ্বালানি তেল দ্বারা চালিত যানবাহনের বদলে এখন অনেকেই সাইকেল কিংবা পদব্রজে বা ইলেকট্রিক গাড়ির উপরেই ভরসা রাখছেন। তবে ভারতের বাজারে ইলেকট্রিক গাড়ির চাহিদা থাকলেও যোগান তেমন নেই। MG ZS EV ও Tata Nexon EV-র মতো গাড়ির পর এবার সম্প্রতি Tesla Model 3 লঞ্চ করা হয়েছে ভারতে।

তবে বিশ্ববাজারে যে পাঁচটি ইলেকট্রিক গাড়ি জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে তার মধ্যে অন্যতম হলো 350 km রেঞ্জের সিট্রয়ন e-C4 গাড়িটি, যার দাম ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ত্রিশ লক্ষ টাকা। এই গাড়িতে রয়েছে 50kWh ব্যাটারি যা মাত্র 30 মিনিটেই 80% চার্জ হয়ে যাবে। গাড়ির 136PS ইলেকট্রিক মোটরটি সর্বাধিক 260Nm টর্ক শক্তি প্রদান করে। সিটে মেমোরি ফোম, হেডস আপ ডিসপ্লে, স্লাইডিং গ্লাস রুফ, কানেক্টেড কার প্রযুক্তি ও ড্রাইভার অ্যাসিস্ট্যান্ট সিস্টেম এই গাড়ির অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

এছাড়াও বিশ্ববাজারে রয়েছে 424 – 540km রেঞ্জের ভোক্সওয়াগন ID.3, যার দাম ৩০ থেকে ৪০ লক্ষ টাকা। এই গাড়ির 77kWh ব্যাটারিটি 38 মিনিটেই 80% চার্জ রাখার ক্ষমতা রাখে। একবার চার্জ দিলেই 540 km পর্যন্ত যাওয়া যায়। আগের গাড়ির মতো এটিও ইউরোপের বাজারেই পাওয়া যায়। 100kW DC ফাস্ট চার্জিংয়ের ব্যবস্থা, দুর্দান্ত ইন্টিরিয়র ও মিনিমালিস্ট ডিজাইন এই গাড়ির অন্যতম বৈশিষ্ট্য।

500km রেঞ্জ বিশিষ্ট হুন্ডাই আয়নিক 5 এর দাম এখনো ঘোষণা করা হয়নি। এই গাড়িটির অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো এর দুর্দান্ত ইন্টিরিয়ার ডিজাইন। 800V ইলেকট্রিক আর্কিটেকচারের দরুন মাত্র 18 মিনিটেই 5% থেকে 80% ব্যাটারি চার্জ হয়ে যায়। মাত্র 5.2 সেকেন্ডে 1 –100 কিমি প্রতি ঘন্টা হিসেবে ছুটতে পারে হুন্ডাই আয়নিক 5।

220km রেঞ্জের হণ্ডা e গাড়িটির দাম আন্তর্জাতিক বাজারে ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় 25 লাখ থেকে 35 লাখ টাকা। এই গাড়ির 135PS ইলেকট্রিক মোটরটি 315Nm টর্ক ক্ষমতা দিতে পারে। এই গাড়িতে রয়েছে 35.5 kWh ব্যাটারি যা গাড়িটিকে দ্রুতগতিতে ছুটতে সাহায্য করে।

আন্তর্জাতিক বাজারে জনপ্রিয় 270 রেঞ্জের নিসান লিফ গাড়িটি শীঘ্রই ভারতে লঞ্চ হতে চলেছে। এই গাড়ির দাম পড়বে ভারতীয় মুদ্রায় প্রায় ত্রিশ লক্ষ টাকা। 150PS ইলেকট্রিক মোটরটি 320Nm টর্ক দিতে সক্ষম। গাড়িতে রয়েছে 40kWh ব্যাটারি এবং গাড়ির অত্যন্ত অভিনব ইন্টেরিয়র ডিজাইন গ্রাহকের নজর কাড়বেই।