মাদক চক্রে অভিযুক্ত রিয়া এবং সৌভিকসহ আরও চার জনের জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল আদালত

6
মাদক চক্রে অভিযুক্ত রিয়া এবং সৌভিকসহ আরও চার জনের জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল আদালত

মাদক সরবরাহ সঙ্গে জড়িত থাকার মামলায় অভিযুক্তা সুশান্তের প্রেমিকা তথা মডেল-অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তীর জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত। রিয়া এবং তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীকে জামিনে মুক্তি দেওয়া হবে কিনা, শুক্রবার তার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণার দিন ধার্য করেছিল মুম্বাইয়ের বিশেষ আদালত। শুক্রবার সকালে রিয়া এবং সৌভিকসহ ঘটনার সাথে জড়িত আরও চার জনের জামিনের আবেদন খারিজ করে দিল আদালত।

উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহের মঙ্গলবার ড্রাগ পাচার চক্রের সাথে জড়িত থাকার অপরাধে গ্রেপ্তার হন রিয়া চক্রবর্তী। তাকে ১৪ দিনের জেল হেফাজতে নিয়েছিল নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো। বৃহস্পতিবার অভিনেত্রীর জামিনের প্রথম শুনানির দিন ধার্য করা হয়েছিল। নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরোর তরফ থেকে আদালতে রিয়ার যে বয়ান পেশ করা হয়, তার সরাসরি বিরোধিতা করে রিয়া জানান ইচ্ছেমতো বয়ান লিখে তাকে দিয়ে জোর করে সই করিয়ে নেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার, আদালতে তরফ থেকে জানানো হয় পরের দিন অর্থাৎ শুক্রবার রিয়া চক্রবর্তী এবং তার ভাই সৌভিক সহ দুই ড্রাগ পাচারকারী আব্দুল বশিত ও জায়েদ ভিলাত্রা, প্রয়াত সুশান্ত সিং রাজপুতের হাউস কিপার দীপেশ সাওয়ান্ত এবং ম্যানেজার স্যামুয়েল মিরান্ডার জামিনের আবেদনের শুনানি হবে। সেইমতো শুক্রবার সকালে জানিয়ে দেওয়া হল, এখনই জামিনে মুক্তি পাচ্ছেন না অভিযুক্তরা।

ফলে আগামী দিনগুলিতে, মুম্বাইয়ের বাইকুলা জেলেই থাকতে হবে তাদের। এদিকে রিয়াকে জামিন না দেওয়ার বিরুদ্ধে জোর সওয়াল করেন রিয়ার আইনজীবী। তার দাবি ছিল, এনসিবি রিয়ার বিরুদ্ধে মাদক পাচারের যে অভিযোগ এনেছে, তাতে কত টাকার লেনদেন হতো, কি কি মাদক পাচার করা হতো সে সম্পর্কে এখনো পর্যন্ত সঠিক কোনো তথ্য পেশ করা হয়নি। অথচ, তার বিরুদ্ধে মাদক আইনের ২৭(এ) ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। যা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন বলেই দাবি করেছেন তিনি।