কর্ম সংস্থান প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন কংগ্রেস এবং সিপিএম

12
কর্ম সংস্থান প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন কংগ্রেস এবং সিপিএম

কর্ম সংস্থান প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর কড়া সমালোচনা করতে শুরু করেছে বিরোধী রাজনৈতিক শিবির। বিশেষত ভোট পূর্বে রাজ্যের বেকার যুবক-যুবতীদের উদ্দেশ্যে যে কর্মসংস্থান এবং তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে বিনিয়োগের আশ্বাস প্রদান করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী, সেই নিয়ে কংগ্রেস এবং সিপিএম তীব্র সমালোচনা করতে শুরু করেছে। কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরী এবং সিপিএমের দলনেতা সুজন চক্রবর্তী কর্মসংস্থান প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন।

কংগ্রেস দলনেতা অধীর চৌধুরী মমতা ব্যানার্জি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বলেছেন, রাজ্যের বেকার সম্প্রদায়ের প্রতি মিথ্যার বন্যা বইয়ে দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে অধীর চৌধুরীর বক্তব্য, আর কিছুদিন পরে মুখ্যমন্ত্রীর চাকরি থাকবে না। অধীর চৌধুরীর অভিযোগ, রাজ্য এবং কেন্দ্রীয় সরকার এক যোগে বেকারদের প্রতি মিথ্যা প্রতিশ্রুতির বন্যা বইয়ে দেওয়ার প্রতিযোগিতায় নেমেছে।

উল্লেখ্য, তৃণমূল সরকারের দাবি গত বছরেই রাজ্যে নাকি ৩৫ লক্ষ্য বেকারের কর্মসংস্থান হয়েছে। এই কর্মসংস্থান কোথায় হয়েছে সেই প্রশ্নও তুলেছেন অধীর চৌধুরী। প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির অনুযোগ, ভোটের আগে রাজ্যের বেকার সম্প্রদায়ের কাটা ঘায়ে নুনের ছিটে দিচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী। বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীর দাবি, নিত্য নতুন প্রকল্পের নামে কোটি কোটি টাকা তছরুপ করছে রাজ্য সরকার।

সুজন চক্রবর্তী দাবি করেছেন, জনগণের টাকায় তৃণমূলের ভোটের প্রচার চলছে। রাজ্য সরকারের “দুয়ারে দুয়ারে সরকার” প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি আরো বলেছেন, পঞ্চায়েত এবং পুরসভাগুলিই রাজ্য সরকারের সঙ্গে সাধারণ মানুষের যোগসুত্র হিসেবে কাজ করে। নতুন প্রকল্প চালু করে মুখ্যমন্ত্রী তাহলে স্বীকার করে নিচ্ছেন তৃণমূল সরকারের আমলে পঞ্চায়েত এবং পুরসভাগুলি কোনো কাজ করেনি, এমনটাই দাবি করছেন সুজন চক্রবর্তী।