মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন এলাকায় যাছেন কেন্দ্রীয় দলের ভয়ে , বলছেন দিলীপ ঘোষ

49
মুখ্যমন্ত্রী বিভিন্ন এলাকায় যাছেন কেন্দ্রীয় দলের ভয়ে , বলছেন দিলীপ ঘোষ

এবার দিলীপ ঘোষ ফের একটি বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসলেন। আর সেই কারণেই ফের তিনি সমালোচনার মুখে পরলেন। এবার তিনি মমতা ব্যানার্জীকে কটাক্ষ করে বললেন, তিনি রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়াচ্ছেন ও সেই কারণেই তিনি লক ডাউনকেও অমান্য করছেন। এদিকে কেন্দ্রের তরফ থেকে পাঠানো হয়েছে কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি।

এবার তাদের ভয়েই নাকি তিনি শহরের বিভিন্ন জায়গায় ঘোড়াফেরা করছেন। এখানেই কিন্তু শেষ করেন নি তিনি, তিনি আরও বলেন, রাজ্যের বিভিন্ন পরিস্থিতি নিয়েই তিনি কথা বলেন। রেশন ব্যবস্থা নিয়েও কথা বলেন ও খাদ্য মন্ত্রীকে একেবারে তুলোধুনা করেন। দেখা যাচ্ছে গত কয়েকদিন থেকে মমতা ব্যানার্জী, গাড়িতে মাইক লাগিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ভাষণ দিচ্ছেন।মানুষকে বার বার সচেতন করছেন করছেন কোনোভাবেই যেনো তারা বাইরে না বের হয়, এই লক ডাউনকে তারা যেনো কোনভাবেই অমান্য না করে।

এবার এই কান্ড দেখেই মুখ খুলেছেন দিলীপ ঘোষ। তিনি জানায়, কেন্দ আগের থেকেই রাজ্যকে বলেছিল তারা যেনো হটস্পট খুজে বের করে, কিন্তু রাজ্য সেটা করে নি, এবার যখন কেন্দ্রীয় দল না বলে কয়ে রাজ্যে এসে পরে, তখন তাদের অবস্থা খারাপ হয়ে যায়, তারা ভয় পেয়ে যায়। এখন তড়িঘড়ি করে রাস্তায় নামে তারা। এদিকে রেশন নিয়েও বলেন তিনি, রাজ্যের রেশন কেলেঙ্কারী, এটা এই সময়ে মেনে নেওয়া যায় না, তারা রাজ্যে ঠিকমতো রেশন পৌছে দিতেই পারছে না। এটা ভাবলেই অবাক লাগে। এই রেশন নিয়ে কেলেঙ্কারী এখন বেশী হচ্ছে, আর বিশেষ করে খাদ্য মন্ত্রীর আমলেই যে বসিরহাট থেকে বাদুরিয়া পর্যন্ত মানুষ রেশন পাচ্ছে না, সেটার কথাও উল্লেখ করেন তিনি।

এদিকে কেন্দ্রের আয়ুশ সেটাকেও নাকি রাজ্য সরকার এখনও নকল করার চেষ্টা করছে, এমনটাও জানিয়েছেন তিনি। কেন্দ্রের এই যে আয়ুশ মন্ত্রক আছে তার মধ্যে বিভিন্ন ধরনের ব্যবস্থা করেছে সরকার।এবার সেটা দেখেই রাজ্য সরকার কাজ করার চেষ্টা করছে। অন্যান্য রাজ্যে ইতিমধ্যে আয়ুশকে মান্যতা দেওয়া হলেও , পশ্চিমবঙ্গে কোনোভাবেই মান্যতা দেওয়া হচ্ছে না। শেষের দিকে বলেন, আয়ুর্বেদকে কোনোভাবেই কাজে লাগানো হচ্ছে না। রাজ্যে এমন অনেক আয়ুর্বেদিক ব্যবস্থা আছে, আর এটা ব্যবহার না করে রাজ্যের ক্ষতি করছে তৃনমূল ।