কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাজে লাগিয়ে পশ্চিমবঙ্গ দখলের চেষ্টা করছে কেন্দ্র সরকার, বিস্ফোরক মমতা

7
কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাজে লাগিয়ে পশ্চিমবঙ্গ দখলের চেষ্টা করছে কেন্দ্র সরকার, বিস্ফোরক মমতা

সোমবার কলকাতার বিডন স্ট্রিটে শেষ দফার নির্বাচনী ভোটের প্রচারে নেমে কেন্দ্রীয় সরকার, নির্বাচন কমিশন এবং কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে রণচন্ডী মূর্তি ধারণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিশেষ করে কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং নির্বাচন কমিশনের বিরুদ্ধে সরাসরি বিজেপিকে সাহায্য ‌করার অভিযোগ তুলেছেন তিনি। তার দাবি কেন্দ্রীয় সরকার কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাজে লাগিয়ে পশ্চিমবঙ্গ দখলের চেষ্টা করছে।

এমন অভিযোগ আগেও তুলেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। তবে এবার তার দাবি কেন্দ্রীয় বাহিনীকে কাজে লাগিয়ে বিজেপি বড়জোর ৮০টা আসনে জিততে পারবে! তার বেশি নয়। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, বিজেপি এইবারেও কিছুই করতে পারবেনা। তৃতীয়বারের জন্য বাংলায় সরকার গঠন করবে তৃণমূল। তিনি আরো বলেছেন, “২০১৯ এ অনেক সহ্য করেছি! তবে এবার আর নয়। নির্বাচন কমিশন বিজেপির হয়ে কাজ করছে! আমার কাছে প্রমাণ রয়েছে। প্রয়োজনে আদালতে যাব”।

প্রসঙ্গত সম্প্রতি দেশের কোভিড পরিস্থিতি নিয়ে নির্বাচন কমিশনের প্রতি কড়া মনোভাব পোষণ করেছে মাদ্রাজ হাইকোর্ট। দেশের ক্রমবর্ধমান করোনা পরিস্থিতির জন্য অনেকাংশে নির্বাচন কমিশনের গাফিলতিকে দায়ী করেছে মাদ্রাজ হাইকোর্ট। এমনকি নির্বাচন কমিশনের প্রত্যেক আধিকারিকের নামে খুনের মামলা দায়ের হওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছে মাদ্রাজ হাইকোর্ট। মাদ্রাজ হাইকোর্টের এই পর্যবেক্ষণকে স্বাগত জানিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

হাইকোর্টের এমন বক্তব্যকে সমর্থন জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন কমিশনকে আমি কাঠগড়ায় দাঁড় করাতে চাই। দেশের কোভিড বেড়ে যাওয়ার জন্য নরেন্দ্র মোদী এবং নির্বাচন কমিশন দায়ী। মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, কেন্দ্রীয় বাহিনীর সদস্যদের করোনা টেস্ট করা হয়নি। নির্বাচন শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও তাদের পশ্চিমবঙ্গে রেখে দেওয়া হয়েছে। যে কারণে করোনা আরো দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে।