করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আগামী ৪ঠা ডিসেম্বর একটি সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিল কেন্দ্র

12
করোনা পরিস্থিতি নিয়ে আগামী ৪ঠা ডিসেম্বর একটি সর্বদলীয় বৈঠকের ডাক দিল কেন্দ্র

প্রায় এক বছর হতে চললো, বিশ্ব জুড়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে করোনা। দিন প্রতিদিন সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের সকল গ্রাফিক্যাল চিত্র এখন রীতিমতো ভুল প্রমাণিত হয়েছে। সংক্রমণ কমার কোনো লক্ষণ নেই। দিন প্রতিদিন উত্তরোত্তর তা যেন বেড়েই চলেছে। এমন পরিস্থিতিতে পরবর্তী পদক্ষেপ কি হতে পারে সে সম্পর্কে আলোচনা করার জন্য আগামী ৪ঠা ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে একটি সর্বদলীয় বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে।

বিশিষ্ট সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, আগামী শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ এই বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছে। এদিনের বৈঠকে লোকসভা এবং রাজ্যসভার সকল সদস্যকে উপস্থিত থাকার জন্য আহবান জানানো হয়েছে। কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, স্বাস্থ্য়মন্ত্রী হর্ষ বর্ধনের নেতৃত্বে এদিনের বৈঠক চলবে। উল্লেখ্য, এই বৈঠক নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জল্পনা তুঙ্গে।

প্রসঙ্গত, করোনাকালে এই নিয়ে দ্বিতীয় দফায় সর্বদলীয় বৈঠকের আয়োজন করলো কেন্দ্র। পাশাপাশি, ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক তিনটি সংস্থার সঙ্গে ইতিমধ্যেই বৈঠক সেরে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। জেনোভা বায়ো ফার্মাসিউটিক্য়াল লিমিটেড, বায়োলোজিক্যাল ই লিমিটেড, ডঃ রেড্ডিস ল্যাবরেটরিসের সঙ্গে বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী। কোভিড পরিস্থিতির মোকাবিলা নিয়ে এই তিন সংস্থার সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে তাদের মতামত জানতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

শুধু তাই নয়, গত শনিবারেও সিরাম ইনস্টিটিউট, ভারত বায়োটেক এবং জাইডাস সংস্থার সঙ্গে আলোচনা করেন প্রধানমন্ত্রী। দেশজুড়ে যেভাবে করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধি পাচ্ছে তাতে সাধারণ মানুষ যাতে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা এবং গুরুত্ব বুঝতে পারেন তার জন্য সাধারণ মানুষকে সহজ ভাষায় বোঝানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ভ্যাকসিন প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলিকে। এদিকে সর্বদলীয় বৈঠকের প্রসঙ্গ উঠতেই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে আশঙ্কা দানা বাঁধছে, বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে তবে কি আবারও লকডাউনের পথে হাঁটতে চলেছে কেন্দ্র?