শ্রী কৃষ্ণ জন্মভুমি পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত মামলাটি গৃহীত হলো মথুরা আদালতে

4
শ্রী কৃষ্ণ জন্মভুমি পুনরুদ্ধার সংক্রান্ত মামলাটি গৃহীত হলো মথুরা আদালতে

সম্প্রতি, “শ্রী কৃষ্ণ জন্মভুমি পুনরুদ্ধার” সংক্রান্ত একটি মামলা দায়ের হওয়ার পর সেই মামলাটি গৃহীত হলো মথুরা আদালতে। মথুরার ডিস্ট্রিক্ট ও সেশন জজ সাধন ঠাকুর গত শুক্রবার এই মামলাটি গ্রহণ করেছেন। উত্তরপ্রদেশে বাসিন্দা রঞ্জন অগ্নিহোত্রি শ্রীকৃষ্ণের জন্মভূমি চত্বর থেকে একটি মসজিদ সরানোর দাবি জানিয়ে আদালতে মামলা দায়ের করেন। তার সেই মামলার ভিত্তিতেই এবার শুনানি শুরু হবে মথুরা আদালতে।

উল্লেখ্য, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের বিশ্বাস অনুসারে মথুরা প্রভু শ্রী কৃষ্ণের জন্মভূমি। তবে হিন্দুদের দাবি, শ্রীকৃষ্ণের জন্ম ভূমির উপরেই স্থাপিত শাহী দরগা মসজিদ। ঐতিহাসিক প্রেক্ষাপট অনুসারে, এক সময় বিতর্কিত জায়গাটিতে কেশবনাথের মন্দির ছিল। ঔরঙ্গজেবের আমলে এই মন্দির ভেঙে সেখানে শাহী দরগা মসজিদ স্থাপন করা হয়।

১৯৩৫ সালে এলাহাবাদ হাইকোর্টের তরফ থেকে ওই এলাকার সত্ব মথুরার রাজাকে প্রদান করা হয়। কালক্রমে সেই সত্ব বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ঘনিষ্ঠ শ্রী কৃষ্ণভূমি ট্রাস্টের অধীনে এসে পৌঁছায়। এরপর অবশ্য ১৯৬৮ সালের এক চুক্তি অনুসারে হিন্দু মালিকানাধীন জমির উপরে মসজিদের রক্ষণাবেক্ষণ করার অধিকার লাভ করে মুসলিম সম্প্রদায়।

কিন্তু সেই চুক্তিকে বেআইনি বলে দাবি করছে শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমি ট্রাস্ট। মন্দির চত্বরের ১৩.৩৭ একর জমি জুড়ে থাকা মসজিদ অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার দাবি জানানো হচ্ছে। উত্তরপ্রদেশ সুন্নি ওয়াকফ বোর্ড ও শাহী দরগার ম্যানেজমেন্ট ট্রাস্টের বিরুদ্ধে ওই জমি জবরদখল করে রাখার অভিযোগ আনা হয়েছে। উল্লেখ্য, এর আগে নিম্ন আদালতে এই মামলাটি খারিজ করে দেন বিচারপতি। এবার মথুরা আদালতে একই মামলা দায়ের করা হয়েছে। শীঘ্রই এই মামলার শুনানি শুরু হবে বলে জানা গেছে।