চাকরির লোভে বাবাকে খুন করল ছেলে

4
চাকরির লোভে বাবাকে খুন করল ছেলে

সরকারি চাকরির প্রতি মানুষের মোহ যে কি ভয়াবহ রূপ ধারণ করতে পারে, তার সাক্ষী থাকলো ঝাড়খণ্ডের রামগড় জেলা। শুধুমাত্র একটা চাকরির লোভে বাবাকে খুন করতেও দ্বিধা বোধ করলো না ছেলে। কারণ কর্মরত অবস্থায় সরকারি কর্মচারীর মৃত্যু হলে মৃতের পরিবার চাকরি পাবে, এ কথা জানতো ছেলে। তাই শেষমেষ বাবাকে খুন করেই সেই চাকরি হাতানোর চেষ্টা করলো অপরাধী।

পুলিশ সূত্রে খবর, ঝাড়খণ্ডের রামগড় জেলার সেন্ট্রাল কোল ফিল্ড লিমিটেডে বারকাখানা অর্থাৎ হেড অফিসের হেড সিকিউরিটি পদে কর্মরত ছিলেন কৃষ্ণ রাম। বছর ৫৫ এর কৃষ্ণ রামকে খুন করেই চাকরি হাতানোর চেষ্টা করেছ তার ৩৫ বছর বয়সী ছেলে। পুলিশ জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে বাড়িতেই কৃষ্ণ রামের গলার নলি কাটা মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

সেন্ট্রাল কোল ফিল্ড লিমিটেডের দেওয়া কোয়ার্টারেই কৃষ্ণ রামের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। পুলিশের অনুমান, বুধবার রাতেই খুন হয়েছেন কৃষ্ণ নাম। ঘরে তল্লাশি চালিয়ে পুলিশ একটি ছোট হ্যামার ছুরি এবং মৃত কৃষ্ণ রামের মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, এই হ্যামার ছুরিটা দিয়েই কৃষ্ণ রামকে খুন করা হয়েছে। সন্দেহের বশবর্তী হয়ে কৃষ্ণ রামের বড় ছেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পুলিশি হেফাজতে থাকাকালীন পুলিশের জেরার মুখে ভেঙে পড়ে কৃষ্ণ রামের বড় ছেলে। অপরাধী স্বীকার করে নেয়, শুধুমাত্র চাকরির লোভের বশবর্তী হয়েই বাবাকে খুন করেছে সে। কারন সে জানতো, সরকারি কর্মচারীর মৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণ স্বরূপ সরকারের তরফ থেকে পরিবারের একজনকে চাকরি দেওয়া হয়। বড় ছেলে হওয়ার সুবাদে সে এই চাকরিটি পেতে পারতো। সেই কারণেই এই নৃশংস ঘটনা ঘটিয়েছে সে।