করোনা মহামারীর কথা নাকি অনেক আগেই বলেছিল অন্ধ যাজক বাবা ভঙ্গা, দাবী তার শিষ্যদের

8
করোনা মহামারীর কথা নাকি অনেক আগেই বলেছিল অন্ধ যাজক বাবা ভঙ্গা, দাবী তার শিষ্যদের

চলতি বছরের সংকটের মুখে পড়ে অনেকেরই প্রশ্ন, জ্যোতিষ বিদ্যা কি গত বছর থেকে বলতে পেরেছিলেন চলতি বছরের এই সমস্যার কথা? এমন অনেক উপহাসের শিকার হতে হয়েছে বিভিন্ন জ্যোতিষবিদদের। কিন্তু এমন একজন মানুষ ছিলেন যিনি ভবিষ্যতের কথা অনেক আগে থেকেই বলে দিতে পারতেন। বুলগেরিয়ার অন্ধ যাজক বাবা ভঙ্গা র মৃত্যু অনেকদিন আগেই হয়েছে। তার শিষ্যরা দাবি করেছিলেন যে, ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর মাসের সেই হামলার কথা অনেক আগে থেকেই তিনি বলে দিয়েছিলেন। এমনকি তিনি এও বলে গিয়েছেন যে, দুই হাজার কুড়ি সালে ভারত জাপান এবং পাকিস্তান চরম বিপদের সম্মুখীন হতে পারে। তবে কি সেই বিপদ তা এখনো পর্যন্ত অজানা সকলের কাছে।

ভক্তদের কাছে অন্ধ যাজক বলে পরিচিত ছিলেন এই ব্যক্তি। তিনি প্রথমত দাবি করেছিলেন যে, এই বছর রাশিয়ার প্রধান শাসক পুতিনের মৃত্যু হতে পারে। তিনি তার মৃত্যুর অনেক আগেই এ কথা বলে গিয়েছিলেন। তিনি আরও বলেছিলেন যে, ৩০০০ বছর পর অর্থাৎ ৫০৭৯ সালে পৃথিবী ধ্বংস হতে পারে। তবে পৃথিবী ধ্বংসের আগে ঘটবে নানারকম বিপর্যয়। পৃথিবীর ধ্বংসলীলার কথা স্পষ্টভাবে না বললেও একাধিকবার তিনি বলে গেছেন দুই হাজার কুড়ি সাল নিয়ে।

তিনি বলেছিলেন যে, দুই হাজার কুড়ি সালে রাজনৈতিক অস্থিরতা তৈরি হতে পারে মধ্য এশিয়ার দেশ গুলিকে ঘিরে। এই অস্থিরতার ফলে বহু মানুষের মৃত্যু হবে। তার মতে, চলতি বছরে মৃত্যু হতে পারে রাষ্ট্রনায়ক পুতিনের। ইউরোপে পুতিনের ওপর বেশ কয়েকটি হামলার ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করেছিলেন তিনি। তবে এতকিছুর মধ্যে সবথেকে বড় ঘটনা তিনি বলেছিলেন ভারত পাকিস্তান এবং জাপান কে নিয়ে। তিনি বলেনগিয়েছিলেন যে, চলতি বছরের শেষের দিকে সুনামির মতো ভয়ঙ্কর ভূমিকম্পে বহু মানুষের মৃত্যু হতে পারে ভারত পাকিস্তান জাপান এবং ইন্দোনেশিয়ায়।

আমেরিকাতে সুনামি না হলেও বড়সড় ভূমিকম্প হতে পারে বলে জানিয়েছিলেন তিনি। ভূমিকম্প ছাড়ার আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাতের সম্মুখীন হতে হবে আমেরিকাকে। প্রাকৃতিক দুর্যোগের ফলে অদূর ভবিষ্যতে আলেম্বিক বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলেও আশঙ্কা করেছিলেন তিনি। এছাড়াও বারাক ওবামা প্রেসিডেন্ট হওয়া থেকে শুরু করে মধ্য এশিয়ার আই সি জঙ্গিদের বাড়বাড়ন্ত হওয়া, এইসব কিছুই না কি বলে গিয়েছিলেন বাবা ভঙ্গা। এর আগেও একাধিকবার ভবিষ্যৎবাণী মিলে গিয়েছে বলে দাবি করেছেন তার ভক্তরা।