রদবদল হতে চলেছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, কেন্দ্রের সাংগঠনিক স্তরে স্থান পেতে চলেছে বাংলার বিজেপি নেতৃত্ব

23
রদবদল হতে চলেছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায়, কেন্দ্রের সাংগঠনিক স্তরে স্থান পেতে চলেছে বাংলার বিজেপি নেতৃত্ব

শিয়রে বাংলার বিধানসভা নির্বাচন। নির্বাচন উপলক্ষে বাংলা দখলের লড়াইয়ে মরিয়া বিজেপি। পশ্চিমবঙ্গে গেরুয়া পতাকা উত্তোলনে কোনো খামতি রাখতে চাইছে না কেন্দ্রীয় শাসক দল। শীঘ্রই কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় রদবদল হতে চলেছে। এবারে কেন্দ্রের নতুন সাংগঠনিক স্তরে বাংলা থেকেও বেশ কিছু বিজেপি নেতৃত্ব স্থান পেতে চলেছেন। রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের দাবি, বাংলার মানুষকে আকর্ষণ করতেই কেন্দ্রে বঙ্গ বিজেপির নেতৃত্বদের স্থান দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বিজেপির।

কেন্দ্রীয় সূত্রে খবর, আগামী ডিসেম্বর মাসেই নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করা হবে। রাজনৈতিক মহলে গুঞ্জন, এবারের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় বাংলা থেকে একজন পূর্ণমন্ত্রী এবং দুইজন রাষ্ট্রমন্ত্রী নির্বাচিত হতে পারেন। এও শোনা যাচ্ছে প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে পূর্ণ মন্ত্রী পদ দেওয়া হতে পারে। পাশাপাশি, বিহারের প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী সুশীল কুমার মোদি নতুন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় স্থান পেতে চলেছেন, এ মোটামুটি ঠিক হয়েই গিয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৯এর লোকসভা নির্বাচনে বাংলা থেকে বিজেপি ১৮টি আসন লাভ করেছিল। তবুও সেই সময় বঙ্গ থেকে মাত্র দুইজনকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিলেন। যা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে জোর তরজা চলেছিল। রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গিতে বিজেপির এহেন পক্ষপাতিত্বকে ভালো ভাবে নেননি বঙ্গ বিজেপির নেতারা। এবারে সেই পথে হাঁটতে চায় না কেন্দ্র। তাই, বিধানসভা নির্বাচনের পূর্বেই সমস্ত অভিযোগ দূর করে বাংলা থেকেও মন্ত্রী নির্বাচন করতে চলেছে কেন্দ্রীয় শাসক দল।

উল্লেখ্য, প্রাক্তন কংগ্রেস নেতা জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়ার নেতৃত্বে মধ্যপ্রদেশ এবং বিহারে সুশীল মোদীর নেতৃত্বে ভালো ফল লাভ করেছে বিজেপি। তার পরিপ্রেক্ষিতে এবার তাদের পুরস্কৃত করার পালা। সেই উদ্দেশ্যেই এবার তাদের সরাসরি কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় ঠাঁই দেওয়া হতে চলেছে। পাশাপাশি, বাংলা থেকেও বেশ কয়েকজন মন্ত্রী পেতে চলেছে দিল্লি।