পেট্রোল এবং ইলেকট্রিক দুই মাধ্যমেই চলবে বাইক! অভিনব আবিষ্কার গুজরাটের এক পড়ুয়ার

11
পেট্রোল এবং ইলেকট্রিক দুই মাধ্যমেই চলবে বাইক! অভিনব আবিষ্কার গুজরাটের এক পড়ুয়ার

পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে সাধারণের নাভিশ্বাস ওঠার জোগাড় হয়েছে। বর্তমান পরিস্থিতিতে তাই পেট্রোল ডিজেলের উপর নির্ভরশীল বাইকের তুলনায় ইলেকট্রিক চালিত বাইকের বাইক চালকদের নির্ভরশীলতা বাড়ছে। যাতায়াত ব্যবস্থায় তাই ইলেকট্রিক চালিত স্কুটার কিংবা মোটরবাইক নতুন দিশা দেখাচ্ছে। গুজরাতের এক পড়ুয়ার অনবদ্য আবিষ্কারও এই মুহূর্তে সাধারণ মানুষদের আশার আলো দেখাচ্ছে।

সাধারণ পেট্রোল চালিত মোটর সাইকেলকেও ইলেক্ট্রিকের ব্যবহার করে দেখিয়েছেন তিনি। তার দাবি তার আবিষ্কৃত এই অভিনব মোটরসাইকেল পেট্রোল এবং ইলেকট্রিক, দুই মাধ্যমেই চলবে। একই মোটরবাইকে এই দুই ব্যবস্থা এনে তিনি এক নতুন হাইব্রিড মোডের মোটরবাইক বানিয়ে ফেলেছেন। এই মোটর সাইকেলে একবার চার্জ দিলে ব্যাটারি ৪০ কিমি পর্যন্ত চলবে। গুজরাতের রাজকোটের বিবিপি ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজের পড়ুয়া আবিষ্কার করেছেন এই অভিনব মোটরবাইক।

মেকানিক্যাল বিভাগের ডিন ডঃ মনিয়র এই মোটর বাইকের কথা প্রকাশ্যে এনেছেন। জ্বালানি তেলের দাম যেভাবে ক্রমাগত বাড়তে বাড়তে আকাশ ছেয়ে ফেলেছে তা বিবেচনা করেই এই ধরনের মোটর বাইকের আবিষ্কার করা হয়েছে। ইলেকট্রিক চালিত বাইকেরর দাম অনেক বেশি হয়, ধীরে ধীরে চার্জ হয় যে কারণে বিকল্পের কথা ভাবতে হয়েছে।

আর বিকল্পের কথা ভাবতে গিয়েই ওই পড়ুয়ার মাথায় আসে এমন একটি বাইকের কথা যা দুই মাধ্যমেই চলতে পারে। এই মোটরবাইক ৬ ঘন্টায় ফুল চার্জ হতে পারে। একবার ফুল চার্জ হয়ে গেলে ৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত মাইলেজ দেয়। অর্থাৎ প্রতি কিলোমিটারে ১৭ পয়সা খরচ হয় এই মোটরবাইকে যাতায়াত করতে গেলে। সাধারণের জন্য যা অত্যন্ত সাশ্রয়কর।