মুকুল রায় এবং শুভেন্দু অধিকারিকে নিয়ে বিরাট সিদ্ধান্ত গেরুয়া শিবিরের

64
মুকুল রায় এবং শুভেন্দু অধিকারিকে নিয়ে বিরাট সিদ্ধান্ত গেরুয়া শিবিরের

একুশের লড়াইয়ের ফল প্রকাশের পর এখন রাজনৈতিক দলগুলি কার্যত নিজেদের দলকে সাংগঠনিকভাবে সাজাতে ব্যস্ত। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের পর রাজ্য শাসক দল হিসেবে ফের নির্বাচিত হয়েছে তৃণমূল শিবির। তৃণমূলের বিরোধী দল হিসেবে রাজ্যে রয়েছে একমাত্র বিজেপি শিবির। তৃণমূল এখন মন্ত্রিসভা গঠনের পরিকল্পনা করছে। অপরপক্ষে বিজেপিও সাংগঠনিকভাবে দল সাজানোর পরিকল্পনা করছে।

একুশে তৃণমূলের কাছে পরাজয়ের পর এখন রাজ্যের প্রধান বিরোধী শক্তি হিসেবে বিজেপি অন্যান্য সকল দলকে পেছনে ফেলে দিয়ে এগিয়ে রয়েছে। এখন বিরোধী দলনেতা হিসেবে দলের তরফ থেকে কাকে নির্বাচন করা হবে সেই নিয়ে চলছে জোর তরজা। বিজেপি শিবিরের বিরোধী দলনেতা হিসেবে দলের তরফ থেকে দুটি নাম নির্বাচন করা হয়েছে।

শুভেন্দু অধিকারী এবং মুকুল রায়, বিরোধীদলীয় নেতা হিসেবে এই দুই রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের নাম নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে এদের মধ্যে কার পাল্লা বেশি ভারী, তা সময় বলবে। বাংলায় বিরোধী দলনেতা নির্বাচনের জন্য দুই কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকের উপর দায়িত্ব দিয়েছে বিজেপি শিবির। কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ এবং বিজেপি দলের অন্যতম সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ভূপেন্দ্র যাদব কেন্দ্রের তরফ থেকে দায়িত্ব পেয়ে বাংলায় বিজেপির বিরোধী দলনেতা নির্বাচন করবেন।