ভোট কাউন্টিংয়ের রিপোর্ট দেখে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে দুষছেন বঙ্গ বিজেপি শিবির

20
ভোট কাউন্টিংয়ের রিপোর্ট দেখে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বকে দুষছেন বঙ্গ বিজেপি শিবির

আব কি বার ২০০ পার! এই স্লোগান যারা দিয়েছিলেন তারা কার্যত ১০০ টি আসন জোগাড় করতেও রীতিমতো হিমশিম খাচ্ছেন। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলের ভোট কাউন্টিংয়ের রিপোর্ট যা বলছে তাতে বিজেপির প্রেস্টিজ ফাইট বাড়ছে বৈ কমছে না। এহেন পরিস্থিতিতে এখন আবার বিজেপির অন্দরমহলে গোষ্ঠী কোন্দল শুরু হতে বাকি!

দলীয় কর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ দেখা দিয়েছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে। বঙ্গ বিজেপি শিবিরের অনেক নেতা-কর্মী কার্যত আজ এই দুর্দিনের জন্য কেন্দ্রের নেতৃবর্গকেই দুষছেন। রাজ্যে বিজেপির আজকের এই পরিস্থিতির জন্য বঙ্গ বিজেপির নেতা কর্মীরা সম্পূর্ণ দায়ভার কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের উপর ছাড়ছেন। বঙ্গ বিজেপি শিবিরের এক উচ্চপদস্থ নেতার বক্তব্য, “বাংলায় বিজেপি জিতলে যারা কৃতিত্ব নিতেন, এখন হারের জন্য তাদের সম্পূর্ণ দায়ভার নিতে হবে।”

এই বক্তব্য থেকেই স্পষ্ট এই যে রাজ্যে ভোট প্রচারের ক্ষেত্রে স্থানীয় নেতৃত্বদের ছাপিয়ে গিয়ে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বদের “তাম-ঝাম” ভালোভাবে নেননি বঙ্গ বিজেপি শিবিরের নেতাকর্মীদের একাংশ। একুশের নির্বাচনে জয়লাভের উদ্দেশ্যে কেন্দ্রীয় নেতৃত্বরা যে পরিবর্তন যাত্রা, রথযাত্রা, সহভোজসহ অন্যান্য কর্মসূচি গ্রহণ করেছিলেন তাদের সাংগঠনিক ক্রিয়া-কলাপ ব্রাত্য থেকে গিয়েছে বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকদের একাংশ।

রাজ্য বিজেপির এক শীর্ষ নেতার অভিযোগ, অন্য রাজ্য থেকে কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক নিযুক্ত করা হয়েছিল বাংলার ক্ষেত্রে। যারা জেলায় জেলায় এসে স্থানীয় নেতৃত্বদের প্রতি অবিশ্বাস প্রদর্শন করেছেন। বাংলার রাজনীতি সম্পর্কে যাদের বিন্দুমাত্র জ্ঞান ছিল না, তারা নিজেদের রাজ্যের রাজনৈতিক অভিজ্ঞতা বাংলায় কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছিলেন! বাংলার মানুষ তা ভালোভাবে নেননি। ভোটের এই ফলাফল তার স্পষ্ট ইঙ্গিত দিচ্ছে বলে দাবি করলেন রাজ্য বিজেপির ওই শীর্ষনেতা।