ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড কলকাতার রেস্তোরাঁয়, আগুন নিয়ন্ত্রনে দমকলের ৫ টি ইঞ্জিন

13
ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড কলকাতার রেস্তোরাঁয়, আগুন নিয়ন্ত্রনে দমকলের ৫ টি ইঞ্জিন

শনিবার কলকাতার গণেশচন্দ্র অ্যাভিনিউয়ের একটি রেস্তরাঁয় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটে গেলো। গণেশ অ্যাভিনিউয়ের ক্ষেত্রদাস লেনের রেস্তরাঁটির গোডাউনে আজ দুপুর সাড়ে বারোটা নাগাদ ভয়াবহ আগুন লাগে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। এদিন দুপুরবেলায় রেস্তোরাঁটিতে বেশ ভিড় ছিল বলেই জানা গিয়েছে। তবে দমকল কর্মীদের তৎপরতায় ইতিমধ্যে আগুন অনেকখানিই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে।

দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন ইতিমধ্যেই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে। দমকলকর্মীরা আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্যে লাগাতার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য আরও ইঞ্জিন প্রয়োজন হতে পারে বলে মনে করছেন দমকল কর্মীরা। দমকল বাহিনীর পাশাপাশি কলকাতা পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্তারাও ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। ওই রেস্তরাঁটি কলকাতা শহরের অত্যন্ত ঘনবসতিপূর্ণ এলাকায় অবস্থিত হওয়াতে রাস্তা থেকে আগুন আশেপাশে ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছিল।

তবে আগুন এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়েছে বলেই জানিয়েছেন দমকল কর্মীরা। বর্তমানে আগুনের প্রভাব নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য “কুলিং” পদ্ধতি চালু করা হয়েছে। মিডিয়া সূত্রে খবর, ওই রেস্তোরাঁর গোডাউনে অনেক দাহ্য বস্তু মজুত ছিল। সেই গোডাউন থেকেই প্রাথমিক ভাবে ছড়িয়ে পড়ে আগুন। রেস্তোরাঁতে উপস্থিত সকলকেই নিরাপদ ভাবে বাইরে বের করে আনা সম্ভব হয়েছে।

এই দিনের দুর্ঘটনার কারণে অবশ্য প্রাণহানি বা কারোর আহত হওয়ার কোনো খবর নেই। মিডিয়া সূত্রে খবর, সিঁড়ির নিচে অত্যন্ত ছোট জায়গা জুড়ে রেস্তোরাঁটির গোডাউন গড়ে তোলা হয়েছিল। গোডাউনের চারিদিকে অসংখ্য বৈদ্যুতিক তার পেঁচিয়ে ছিল। গোডাউনেই ছিল রেস্তোরাঁর মিটার বক্সটি। ফলে আরো বড় দুর্ঘটনার সম্ভাবনা থেকে গিয়েছিলো। কিন্তু দমকল কর্মীদের তৎপরতায় বড় দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে।