পুণের সেরাম ইনস্টিটিউটে ভয়াবহ আগুন, মৃত ৫

8
পুণের সেরাম ইনস্টিটিউটে ভয়াবহ আগুন, মৃত ৫

আজ দুপুরেই ভয়াবহ আগুনের কবলে পড়ে ভারতের সর্ববৃহৎ ঔষধ উৎপাদনকারী সংস্থা পুণের সেরাম ইনস্টিটিউট অফ ইন্ডিয়া! আগুনের কবলে পড়ে ওই সংস্থায় কর্মরত পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। মৃতদের মধ্যে একজন মহিলাও ছিলেন। পুণের মেয়র মূরলীধর মোহল এই খবরের সত্যতা স্বীকার করে নিয়েছেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এখানেই করোনা প্রতিরোধী ভ্যাকসিন “কোভিশিল্ড” সংরক্ষিত আছে।

তবে ভ্যাকসিন সংরক্ষণকারী অংশে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। এদিন পুণের সেরাম ইনস্টিটিউটের কর্মী বিল্ডিং “মঞ্জরি ক্যাম্পাস” এ আগুন লাগে। এই বহুতলের ছয়তলাতে আগুন লেগেছিল। আগুনের ভয়াবহতা এতটাই বেশি ছিলো যে গোটা ক্যাম্পাস আগুনের ফলে উৎপাদিত ধোঁয়ায় ঢেকে যায়। এর ফলে বিল্ডিংয়ে উপস্থিত কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক ত্রাসের সৃষ্টি হয়। তবে দমকলের প্রচেষ্টায় আগুন এখন সম্পুর্ণ ভাবে নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব হয়েছে।

পুণের দমকল কর্তা প্রশান্ত রানপিসে জানিয়েছেন, এদিন দুপুর আড়াইটার পর তাদের কাছে সেরাম ইনস্টিটিউটে আগুন লাগার খবর পৌঁছায়। দমকলের একাধিক ইঞ্জিন এদিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালায়। প্রায় দেড় ঘন্টার প্রচেষ্টায় বিকেল চারটের পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব হয়। আগুন লাগার কারণ এখনো অজানা। পাশাপাশি, এই আগুনের ফলে ওই বিল্ডিংয়ের কতটা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা এখনও জানা সম্ভব হয়নি।

এদিন সেরাম ইনস্টিটিউটের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য তালজলা থেকে জাতীয় বিপর্যয় রক্ষাবাহিনীর একটি ব্যাটেলিয়ানের এদিন দমকলের সাহায্যার্থে পুণে পৌঁছায়। দমকল বাহিনী সূত্রে খবর, হাইড্রোলিক রাডার ব্যবহার করে আগুনের উৎস সন্ধানের প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। তবে আগুনের জেরে সারা বিল্ডিং ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছে। তাই আগুনের উৎস সন্ধানে অসুবিধা হচ্ছে।