আগের তুলনায় অনেক উন্নত হয়েছে তালিবান জঙ্গিরা! উদ্বেগ বাড়ছে আফগানিস্তান প্রশাসনের

19
আগের তুলনায় অনেক উন্নত হয়েছে তালিবান জঙ্গিরা! উদ্বেগ বাড়ছে আফগানিস্তান প্রশাসনের

আফগানিস্তানের অনেকটা অংশ দখল করে নিয়েছে তালিবানরা। তালিবানদের উপদ্রবে রীতিমতো বিপর্যস্ত দেশের সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা। নারী-পুরুষ ও শিশু নির্বিশেষে অত্যাচার চালাচ্ছে তারা। আফগানিস্তানের একাধিক প্রাদেশিক রাজধানী দখল করে নিয়েছে তারা। তারা যে ভিডিওগুলি সোশ্যাল সাইটে আপলোড করছে তা থেকে বোঝা যাচ্ছে আগের তুলনায় বর্তমানে অনেক উন্নত হয়েছে জঙ্গিরা। তাদের কাজের পদ্ধতিতেও এসেছে বড়সড় পরিবর্তন।

যে যুদ্ধাস্ত্র এবং যানবাহন নিয়ে তারা আক্রমণ চালাচ্ছে সেই যানবাহন এবং যুদ্ধাস্ত্রগুলি অনেক উন্নত। পাশাপাশি নতুন ডিজাইনের পোশাক পরিচ্ছদ পড়ছে তালিবান জঙ্গিরা। এই দেখে বেশ কষ্ট এই যে তালিবান জঙ্গিদের হাতে প্রচুর অর্থ সম্পদ হয়েছে। ফলে স্বভাবতই প্রশ্ন উঠছে যে তালেবান জঙ্গিরা এত অর্থ-সম্পদ পেল কোথা থেকে? উল্লেখ্য তালিবানরা বরাবরই প্রভূত অর্থ-সম্পদের মালিক।

২০১৬ সালে ১০ টি জঙ্গি সংগঠনের মধ্যে তালিবানকে ধনীর বিচারে পাঁচ নম্বর স্থানে রাখা হয়েছিল। সেই সময় তালিবানদের বাৎসরিক টার্নওভার ছিল ৪০০ মিলিয়ন ডলার। মাদক পাচার, protection money ও অনুদানে পাওয়া অর্থকেই প্রধানত এই বিপুল সম্পদের উৎস বলে উল্লেখ করা হয়েছিল। তবে বিগত চার বছরের অন্ততপক্ষে আগের তুলনায় ৪০০ শতাংশ সম্পদ বাড়িয়ে ফেলেছে তালিবানরা।

আফগানিস্তানের ৩৪টি প্রদেশের মধ্যে ১২টিই এই মুহূর্তে তালিবানদের দখলে রয়েছে বলে জানা গিয়েছে। আর মাত্র কয়েক দিনের মধ্যেই সম্পূর্ণ আফগানিস্তান দখল করে নেওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছে এই জঙ্গি গোষ্ঠী। কূটনৈতিক মহলের আশঙ্কা, এরকম চলতে থাকলে আগামী তিন মাসের মধ্যেই আফগানিস্তান দখল করে নেবে জঙ্গিরা।