দেখে নিন ভারতের সেই মিনি ইসরায়েল গ্রাম, যেখানে পুরুষদের প্রবেশ নিষেধ

94
দেখে নিন ভারতের সেই মিনি ইসরায়েল গ্রাম যেখানে পুরুষদের প্রবেশ নিষেধ

বিবিধের মাঝে মিলন মহান। ভারতবর্ষ এমন একটি দেশ যেখানে বহু জাতি একসাথে মিলেমিশে থাকতে পারেন। বহু ভারতীয়রা বিদেশে ঘুরতে যান, কিন্তু ভারতবর্ষের মধ্যে এমন অনেক স্থান আছে যারা বিদেশে থেকেও সুন্দর। রবীন্দ্রনাথ বলেছিলেন, দেখা হয় নাই চক্ষু মেলিয়া, ঘর থেকে শুধু দুই পা ফেলিয়া, একটি ঘাসের শিষের উপর একটি শিশিরবিন্দু, হিমাচল প্রদেশের পার্বতী নদীর তীরে কাসোল নামে একটি গ্রাম অবস্থিত। এ গ্রামটি বহু আগে একটি বাস স্টপ মাত্র ছিল, কিন্তু লোক বসতি শুরু হয় অনেক পরে থেকে। ২০১৪ সাল থেকে আস্তে আস্তে এখানে পর্যটকরা ভিড় জমাতে থাকে।

প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের কারণে অন্যতম বিখ্যাত স্থান হিমাচল প্রদেশের এই গ্রামটি। কিন্তু সবথেকে আশ্চর্য ব্যাপার হলো, অন্য রাজ্য থেকে কোন পুরুষকে এই গ্রামে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হয় না। স্থানীয় এক পর্যটন ব্যবসায়ীদের মতে, বহুদিন আগে বিদেশী পর্যটকরা এখানে ভিড় জমাত। তাদের মধ্যে কিছু ভারতীয় পুরুষ এই গ্রামে এসে বিদেশী মহিলাদের উত্ত্যক্ত করায় নিষিদ্ধ হয়ে গেছে পুরুষের অবাধ অধিকার।

আরো আশ্চর্য লাগবে, গ্রামে প্রবেশ করলেই মনে হবে কোন ইজরায়েলী গ্রামে চলে এসেছেন। গ্রামের প্রত্যেকটি থাকা-খাওয়ার ওপর রয়েছে ইজরাইলিদের। ইজরাইলি স্পর্শ থাকার প্রধান কারণ এখানে বহু পর্যটক বেড়াতে আসেন।

নিজেদের ব্যবসা সুবিধার্থে এই গ্রামটিকে তারা ইসরাইলীদের মনের মত করে তুলে ধরেছেন। যেহেতু খুব নিরিবিলি এই স্থানটি, তাই শান্তিতে প্রাকৃতিক নৈসর্গ দৃশ্য উপভোগ করার জন্য এ গ্রামটি কোন তুলনাই হতে পারে না।

জেনে নেওয়া যাক, কেন এই গ্রামে ইজরাইলি পর্যটকরা বেশি ভিড় করেন। ইসরাইল দেশের বহু যুবক যুবতীদের মিলিটারি ট্রেনিং নিতে হয়। কঠিন ট্রেনিংয়ের পরিশ্রমের পর কিছু মাস বিশ্রাম এবং আনন্দ উপভোগ করার জন্য ভারতবর্ষের এই জায়গাটিকেই তারা বেছে নিয়েছেন। পর্যটন শিল্পের চাহিদা ধরে রাখার জন্য তাদের মনের মত করেই সাজানো হয়েছে গ্রামটিকে। অনেকে আবার এই গ্রামটিকে মিনি ইসরাইল বলেও আখ্যা দিয়েছেন।