দেখে নিন সিজারের পর অতিরিক্ত মেদ কমাতে বেল্ট ব্যবহার করলে কতটুকু উপকার পাওয়া যায়

6
দেখে নিন সিজারের পর অতিরিক্ত মেদ কমাতে বেল্ট ব্যবহার করলে কতটুকু উপকার পাওয়া যায়

জীবনের প্রত্যেকটি নারী কোন না কোন সময় মা হতে চায়। মা হবার জন্য জীবনের ঝুঁকি পর্যন্ত নিতে পারে যে কোন নারী। একটি সন্তানকে জন্ম দেওয়া নারী জীবনের সবথেকে কঠিনতম সময়ে। কিন্তু সেই কঠিন সময়টি সহজে পার করে দিতে পারে একজন মেয়ে। জন্মদানের পর অনেক সাবধানতা অবলম্বন করতে হয় তাকে। স্বাভাবিক প্রসবের থেকে সিজারিয়ান প্রসব অনেক বেশি চ্যালেঞ্জিং।

গর্ভধারণের সময় অতিরিক্ত ওজন বেড়ে যায় তা অনেক সময় কমে না পরে। অতিরিক্ত ওজনের আগের ফিগারে ফিরে যাওয়া যায় না। পেটের মেদ কমানোর খুব সহজ নয়, তা আমরা জানি, এবং তা আরও কঠিন হয়ে যায় সিজারিয়ান অবস্থার পর।
কারণ ওই সময় কোন রকম এক্সারসাইজ করা যায় না।

এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আজকে আমরা জেনে নেব, সিজারের পর বেল্ট ব্যবহার করলে কতটুকু উপকার পাওয়া যায়। সিজারের পর আমরা অনেকেই বেল্ট পরি। সেই বেল্ট পড়ে আমাদের অতিরিক্ত মেদ কমানোর চেষ্টা করি। তবে এই বেল্ট এর গুনাগুন জেনে নেব আজকে।

বেল্ট ব্যবহার কখন উপযুক্ত?

সিজারের পর কোমরে বেল্ট ব্যবহার করা যায়, এতে কোনো সমস্যা হয় না। তবে হাঁচি কাশি এবং টয়লেট ব্যবহার করার সময় বেল্ট ব্যবহার করা উচিত। এর ফলে হাঁটতে সুবিধা হয়। সিজারের পর সেলাই শুকানোর পর থেকেই বেল্ট পরা যায়। ৪০ দিন পর্যন্ত দিনে প্রায় ১২ ঘণ্টা পর্যন্ত বেল্ট পরতে পারবেন আপনি।

বেল্ট ব্যবহারের সুবিধা

এই বেল্ট পড়লে পেটের চারপাশে অতিরিক্ত মেদ জমতে দেয়না। ফলে আপনার পেট থলথলে হয়ে যায় না।

সিজারের সময় পেটে কয়েক স্তরের মাংস পেশী কেটে নেয়। বেল্ট পরার ফলে সেই মাংসপেশি জোড়া লাগার পদ্ধতি খুব দ্রুত হয়।

বেল্ট ব্যবহার করলে নবজাতককে নাড়াচাড়া করতে সুবিধা হয় আপনার।

সিজারের পর বেল্ট ব্যবহার করলে খুব তাড়াতাড়ি জরায়ু আগের অবস্থায় ফিরে আসে।

বেল্ট ব্যবহার করলে কোমরের ব্যথার উপশম হয়।

কখন বেল্ট পরা যাবে না

সিজারের পর ইনফেকশন থাকলে বেল্ট পরা যাবে না।

অতিরিক্ত টাইট করে বেল্ট পড়লে হার্নিয়া হতে পারে।

গরমকালে বেশিক্ষণ বেল্ট ব্যবহার করলে ঘাম থেকে ইনফেকশন হতে পারে।

প্রসবকালীন উচ্চ রক্তচাপের সমস্যা থাকলে বেল্ট ব্যবহার করা যায় না।

সিজারের পর বেল্ট ব্যবহার করলে কিছু জিনিস খেয়াল করতে হবে।

সঠিক মাপের বেল্ট ব্যবহার করতে হবে আপনাকে।

এমনভাবে পড়বেন যাতে খুব বেশি শক্ত বা ঢিলে না হয়ে যায়।

খাবার খাওয়ার আধ ঘন্টা পর বেল্ট পড়বেন। ঘুমাতে যাবার সময় অথবা স্নান করার সময় বের করবেন না।

ইলাস্টিক ফাইবারের বেল্ট ব্যবহার করবেন। ভিজে গেলে ভেজা বেল্ট পরবেনা।

বেল্ট ছাড়াও যেভাবে আপনি মেদ কমাতে পারবেন

সিজারের পর মেদ কমানোর জন্য আপনি ছয় মাস বাচ্চাকে বুকের দুধ খাওয়ান।

অতিরিক্ত জল পান করতে হবে এই সময়ে। এতে সব সময় আপনার পেট ভরা থাকবে এবং কম খিদে পাবে।

প্রসাবের কিছু মাস পর থেকেই হালকা ব্যায়াম করতে শুরু করতে হবে। এতে করে পেটে অতিরিক্ত মেদ জমতে পারবে না।

প্রোটিন ফল-সবজি প্রচুর পরিমাণে খেতে হবে। ফ্যাট জাতীয় খাবার থেকে বিরত থাকুন।

পর্যাপ্ত ঘুম হওয়া টা খুব জরুরী। সবকিছু সামলে ও নিজের জন্য সময় বার করতে হবে।