দেখে নিন লক্ষীর ভান্ডার ফর্মে যে ভুল করে থাকলে টাকা পাওয়া যাবে না

17
দেখে নিন লক্ষীর ভান্ডার ফর্মে যে ভুল করে থাকলে টাকা পাওয়া যাবে না

একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রকাশিত ইশতেহার অনুযায়ী একে একে প্রতিশ্রুতি পূরণ করছে রাজ্য সরকার। তারমধ্যে মুখ্যমন্ত্রীর সাধের প্রকল্প লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। ইতিমধ্যেই দুয়ারে সরকার ক্যাম্পে গিয়ে সারা রাজ্যের মহিলারা তাদের লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের ফর্ম জমা দিচ্ছেন। তবে ফর্ম পূরণে বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে যদি ভুল থেকে যায় তাহলে কিন্তু লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা পাবেন না। জেনে নিন কোন কোন জায়গায় ভুল থাকলে লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের টাকা পাওয়া যাচ্ছে না।

এই প্রকল্পে আবেদনের জন্য আপনি যে ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট নম্বর দিচ্ছেন সেই অ্যাকাউন্ট নম্বরের সঙ্গে যেন আধার কার্ডের লিঙ্ক করানো থাকে। কারো ক্ষেত্রে যদি সিঙ্গেল একাউন্ট নাম্বার না থাকে সেক্ষেত্রে জয়েন্ট একাউন্ট দিয়েও আবেদন করা যাবে। লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পের ফর্মে যেন দুয়ারে সরকার ক্যাম্প রেজিস্ট্রেশন নম্বর অবশ্যই থাকে তা দেখে নিতে হবে। যদি এই নাম্বার না থাকে তাহলে ফরম বাতিল হয়ে যাবে।

লক্ষ্মীর ভান্ডার প্রকল্পের ফর্মের সঙ্গে অবশ্যই আধার কার্ড, ভোটার কার্ড, রেশন কার্ড, সাস্থ্য সাথী কার্ড, ব্যাংক-এর পাসবই এর জেরক্স এবং নিজের একটি রঙিন ছবি জমা দিতে হবে। রাজ্য সরকারের তরফ থেকে চালু করা এই প্রকল্পের আওতায় SC, ST ক্যাটাগরির মহিলারা প্রতি মাসে ১০০০ টাকা করে এবং জেনারেল ক্যাটাগরির মহিলারা মাসিক ৫০০ টাকা করে পাবেন। তবে তারা যদি সরকারী চাকুরী করেন তাহলে তারা এই প্রকল্পের সুবিধা পাবেন না।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের স্বাস্থ্য সাথী প্রকল্পের মতো লক্ষীর ভান্ডার প্রকল্পেও সারা রাজ্য জুড়ে ব্যাপক সাড়া মিলেছে। ইতিমধ্যেই প্রায় দেড় কোটি মহিলা এই প্রকল্পের জন্য আবেদন পত্র জমা দিয়েছেন বলে জানিয়েছে রাজ্য সরকার। আবেদনকারীদের ব্যাংক একাউন্টে সেপ্টেম্বর মাস থেকেই এই প্রকল্পের টাকা ঢুকতে শুরু করবে বলে জানানো হয়েছে।